কুষ্টিয়ায় স্বামীর গোপনাঙ্গ কেটে স্ত্রী পালাতক

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাস ফুলতলা এলাকায় আরিফুল হক (৪০) নামের একজনের গোপনাঙ্গ কেটে কেটে পালিয়েছেন তারই স্ত্রী খালেদা পারভীন (৩০)। শনিবার রাতে চৌড়হাস ফুলতলা ল্যাবরেটরি স্কুলের সামনের গলির এলাকায় তার নিজ বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। আহত আরিফুল ইসলাম কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার কাচারী খাদিমপুর এলাকার মৃত আজিজুল হকের ছেলে ও তার স্ত্রী খালেদা পারভীন যশোর জেলার চুরামনকাঠি এলাকার কাজী হাফিজুল্লাহর মেয়ে। আরিফুল ইসলাম সোনালী ব্যাংক হরিনারায়নপুর শাখার প্রিন্সিপাল অফিসার হিসেবে চাকরীরত রয়েছেন।
আরিফুলের বড় ছেলে নাজমুস সাকিব জানান, বাসায় কোন ভাড়াটিয়া ছিলোনা। তখন এশার আযান হচ্ছিলো আম্মু তখন বলছিলো তুই নামাজ পরতে যা আর দোকান থেকে কিছু নিয়ে আসিস। আমি নামাজ পঅরে দোকান থেকে এসে দেখি আব্বু চিল্লাচ্ছে। আব্বু সবাইকে ডাকাডাকি করছে আর পরে পরে যাচ্ছে। তখন আব্বু আমাকে বললো অটো ডেকে নিয়ে আয়। তারপর অটো ডেকে নিয়ে আসলাম তারপর চাচারা এসে আব্বুকে হাসপাতালে নিয়ে আসলো। এর আগে কোন ঝগরাঝাটির ঘটনা ঘটেনি। হঠাৎ করেই এম্ন হয়ে গেলো। তবে আম্মু আব্বুকে অনেক সন্দেহ করতো।
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছেন বিশেষ অঙ্গের ৮০ ভাগ কেটে পরে গেছে৷কেটে যাওয়া অংশ খুজে না পাওয়ায় বিশেষ অঙ্গ আর ঠিক করা যাবেনা।
কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, ঘটনা শুনেছি। পুলিশ বিষয়টি দেখছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যাবস্থাগ্রহন করা হবে।

Post a Comment

Previous Post Next Post