চাটারদল ও বাজার সিন্ডিকেটের হোতারা সরকারের সকল অর্জন ম্লান করে দিচ্ছে : আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন

আব্দুল আলিম ॥ কেন্দ্রীয় জাসদের  সাংগঠনিক ও কুষ্টিয়া জেলা শাখার কর্মীবান্ধব সংগ্রামী সাধারণ সম্পাদক জননেতা আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন বলেছেন, চাটার দল ও বাজার সিন্ডিকেটের হোতারা সরকারের সকল অর্জন ম্লান করে দিচ্ছে। সকল পর্যায়ে লুটপাট, দলবাজি ও বাজার সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সার-তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের ক্রমবর্ধমান উর্দ্ধগতির কারনে জনজীবনে যে অসহনীয় দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে, তা থেকে পরিত্রান পেতে সবাইকে জাসদের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। কেন্দ্রীয় জাসদ নেতা আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন সোমবার বিকেলে ভেড়ামারা বাসস্ট্যান্ডের শাপলাচত্বরে জাসদ প্রতিষ্ঠার ৫০বছর (সূবর্ণজয়ন্তী) পালন উপলক্ষে উপজেলা জাসদ আয়োজিত এক বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে রাখা বক্তব্যে এসব কথা বলেন। বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ভেড়ামারা পৌর জাসদের সভাপতি হাসান বিন মাহমুদ ঝন্টু'র সভাপতিত্বে এবং উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক এসএম আনছার আলী'র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আজকের ঐতিহাসিক এই জনসভায়, কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম মহসিন,  ভেড়ামারা পৌরসভার মেয়র আনোয়ারুল কবির টুটুল, কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক অসিৎ কুমার সিংহ রায়, শিল্প ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মঈনুল হক ডাবলু, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক বশির উদ্দিন বাচ্চু, আইনবিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. তানজিলুর রহমান এনাম, চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন জাসদের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, কুষ্টিয়া জেলা ছাত্র লীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম তুহিন, উপজেলা যুবজোট নেতা রকিব সরকারসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটি’র সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন আরো বলেন, অসাংবিধানিক পন্থায় দেশে তালেবানী সরকার প্রতিষ্ঠার চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র প্রতিহত ও বাজার সিন্ডিকেট নির্মূলে রাজপথে জাসদের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে। লুটপাট ও দলবাজির বিরুদ্ধে জনমত গঠনে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে তিনি সর্বস্তরের দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি জোরালো আহ্বান জানান। এলাকায় শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান ও উন্নয়ন কর্মকান্ড নিশ্চিত করতে সবাইকে জাসদের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দলবাজি, লুটপাট আর বাজার সিন্ডিকেট পরিচালনা করে সবধরনের দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত উর্দ্ধগতি রোধ করে জনজীবনে স্বস্তি ফিরিয়ে আনতে জাসদ ইতোমধ্যে বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলন করে এবিষয়ে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে। দলবাজি, দখলবাজি, লুটপাট ও বাজার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে গণজাগরণ সৃষ্টি করে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠার আন্দোলনকে আরও বেগবান করতে হবে।

Post a Comment

Previous Post Next Post