ভেড়ামারায় হত্যা দায়ে বাবা-ছেলে ও জামাইয়ের কারাদণ্ড

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে রজব আলীকে (৫৬) কুপিয়ে হত্যা মামলায় আসামি আনোয়ার হোসেনকে যাবজ্জীবন, কনককে দুই বছর ও রফিককে চার বছরের সশ্রম কারাদণ্ড  দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে কুষ্টিয়া বিশেষ জজ (জেলা ও দায়রা জজ) আদালতের বিচারক আশরাফুল ইসলাম এ রায় দেন। একই সাথে আসামি আনোয়ার ও রফিককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড এবং কনককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও চার মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী।
রায় ঘোষণার সময় আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রফিক ও কনক উপস্থিত ছিলেন। রায় ঘোষণার পর পরই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আনোয়ার হোসেন পলাতক রয়েছেন। যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় উপজেলার মোকারিমপুর ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে আনোয়ার হোসেন, আনোয়ারের ছেলে কনক ও আনোয়ারের জামাই রফিক। রফিক একই গ্রামের শরির ছেলে। এ মামলায় অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় ফারুক, আনোয়ারা ও মমতাজ বেগমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।
আদালত সূত্র জানায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ২০১০ সালের ১৯ মে বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ভেড়ামারা উপজেলার মোকারিমপুর ইউনিয়নের ফকিরাবাদ গ্রামের মৃত ভিকু মন্ডলের ছেলে রজব আলীকে (৫৬) রামদা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে আসামিরা। ঘটনার দিন রাতে নিহতের ছোট ভাই ইদবার আলী বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ২৭ সেপ্টেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন। নির্ধারিত ধার্য তারিখে আদালতের বিচারক মামলার আসামিদের বিভিন্ন মেয়াদে এ আদেশ দেন।
মামলার বাদী ও নিহত রজব আলী ছেলেরা বলেন, আসামিরা আমার বাবাকে রামদা দিয়ে প্রকাশ্যে  নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে, আর যাতে কোনো মানুষ আমার বাবার মতো হত্যার শিকার না হয় এজন্য তাদের ফাঁসি হওয়া দরকার ছিল। কিন্তু কাউকে ফাঁসি দেয়া হয়নি, উল্টো তিন আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে। আমরা এ রায়ে খুশী না। আমরা উচ্চ আদালতে ফাঁসির দাবি জানিয়ে আবেদন করবো।
আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে কুপিয়ে হত্যা মামলায় আসামি আনোয়ার হোসেনকে যাবজ্জীবন, কনককে দুই বছর ও রফিককে চার বছরের সশ্রম কারাদণ্ড  দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তিনজনকে খালাস দিয়েছেন আদালত।
 

Post a Comment

Previous Post Next Post