ডাঃ একেএম কাওসার হোসেন নিখাঁদ অমায়িক ব্যক্তিত্ব সুলভ ও সদাহাস্যজ্বল একজন মানুষ

দিপু খাঁন ॥
আলহাজ্ব ডাঃ একেএম কাওসার হোসেন, একজন নিখাঁদ অমায়িক ব্যক্তিত্বসুলভ ও সদাহাস্যজ্বল একজন মানুষ। ছিলেন নিবেদিতপ্রাণ একজন সমাজকর্মী, গরীবের ডাক্তার, নির্বাচিত এক জনপ্রতিনিধি এবং এতদ্বাঞ্চলের সকলের পরিচিত ও সমাদৃত একজন মিডিয়াকর্মী। এতোসব মানবিক গুণাবলীর একজন মানুষ চলাফেরা করতেন অতি সাধারণ আর সবার মতোই। ছিলো না কোনো অহংবোধ। অকপটে সবাইকে আপন করে নেওয়ার এক অদ্ভুত গুণাবলীর কারনে তিনি সবার মনজয় করে নিতে সক্ষম হয়েছিলেন। পেশায় একজন ডাক্তার হয়েও কখনো কোনো রোগীর কাছ থেকে ডাক্তারি ফিস গ্রহন করেননি। নিজের পকেটের পয়সায় বা মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভদের কাছ থেকে চেয়ে নিয়ে সেই ঔষধ দিয়েছেন গরীব ও অসহায় অনেক রোগীদের। এলাকাবাসীর বিভিন্ন আপদ-বিপদ ও নানা প্রয়োজনে ছুটে গেছেন নিঃস্বার্থভাবে। একসময় এলাকার গণমানুষের আকাঙ্খা মেটানোর স্বার্থেই পৌর কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্লান্তিহীন ভাবে জনসেবায় নিজেকে ব্রতি করেছেন। দেশ স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশ পূণঃর্গঠনে আত্মনিয়োগ করতে সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে গ্রহন করেন আলহাজ্ব ডাঃ একেএম কাওসার হোসেন। ভেড়ামারা প্রেসক্লাব গঠনে তাঁর অনস্বীকার্য ভূমিকা স্থানীয় সংবাদকর্মীরা চিরদিন গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণে রাখবে। আজকের দিনে ডাঃ একেএম কাওসার হোসেন'র মতো নিবেদিতপ্রাণ একজন সমাজকর্মী, একজন জনপ্রতিনিধি, একজন গরীবের ডাক্তার, সর্বোপরি একজন সাংবাদিক নেতার বড্ড অভাব। সমাজের নানা কূপমন্ডুকতা আর অনাচারের বিরুদ্ধে লড়াই করার মতো একজন বরেণ্য ব্যক্তিত্ব ডাঃ একেএম কাওসার হোসেন। যিনি যুগযুগ ধরেই আমাদের সবার অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেন।
 

Post a Comment

Previous Post Next Post