ভেড়ামারায় পদ্মা নদীর ভাঙন রোধের দাবিতে মানববন্ধন


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় পদ্মা নদীর তলদেশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলনের কারনে সৃষ্ট নদী ভাঙন রোধ এবং নদীগর্ভ থেকে বালু উত্তোলন বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবিতে রোববার বেলা ১১টার সময় এলাকাবাসীর উদ্যোগে এক শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ভেড়ামারা বাহিরচর ইউনিয়ন জাসদের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসান বলেন, বেশ কয়েকবছর ধরে পদ্মা নদীর তলদেশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করছে এলাকার চিহৃতি প্রভাবশালী গোষ্ঠী। এর বাইরে নদীর পাড় থেকে ফ্রি স্টাইলে মাটিও কাটা হচ্ছে। এ কারনে পদ্মা নদীর তীরবর্তী ভেড়ামারা উপজেলার পশ্চিম বাহিরচর, ১২মাইল, মসলেমপুর ও টিকটিকি পাড়া গ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকায় ভয়াবহ নদী ভাঙনের সৃষ্টি হয়ে বসতভিটা, ফসলী জমি ও ফলজ বাগান নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। হুমকির মুখে পড়েছে কুষ্টিয়া-পাবনা ভায়া ভেড়ামারা মহাসড়ক। এমতাবস্থায় আতঙ্কিত এলাকাবাসী নদীর তলদেশ থেকে অবাধে বালু উত্তোলন ও নদীর পাড় থেকে মাটি কাটা বন্ধের দাবিতে টিকটিকি পাড়াস্থ নদীর তীরে এক শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। ইতিপূর্বেও অনুরুপ আরেকটি মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছিলো। বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে স্থানীয়রা বলেন, ভাঙনের তীব্রতা বেড়ে গেছে। ইতিপূর্বে আউশ ধান, কলা, পেঁয়াজ, রসুন, করলাসহ সবজির মাঠ নদীতে ভেঙে গেছে। ভাঙনে ১৫০ একর জমি নদীতে পদ্মা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এর আগেও ভেঙেছে। এখন বাড়িঘর ভাঙনের মুখে। নদী এখন দুই শত মিটার দুরে রয়েছে। রোধ করা না হলে সব নদী গর্ভে চলে যাব আমরা ভিটা ছাড়া হব। তাই ভাঙন রোধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। 

Post a Comment

Previous Post Next Post