খোকসায় ছোট ভাইয়ের লাশ দেখে ৩ ঘন্টা পর মারা গেলেন বড় ভাই

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় ছোট ভাইয়ের লাশ দেখে অসুস্থ হয়ে পড়েন আরেক ভাই। কয়েক ৩ ঘণ্টার ব্যবধানে তিনিও মারা যান। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টায় ও ভোর ৫টায় খোকসা পৌরসভার জানিপুর পুরাতন বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মাত্র ৩ ঘণ্টার ব্যবধানে দুই ভাইয়ের মৃত্যুতে ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মারা যাওয়া দুই ভাই হলেন মালেক শাহ (৭০) ও তাঁর ছোট ভাই সালেক শাহ (৬৫)। তাঁরা খোকসা পৌরসভার জানিপুর পুরাতন বাজার এলাকার মৃত করিম শাহের ছেলে।
দুই ভাইয়ের ভাগনে লালু শাহ জানান, তাঁর ছোট মামা সালেক শাহ (৬৫) বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর খবর পেয়ে ছোট ভাইয়ের লাশ দেখতে যান বড় ভাই মালেক শাহ। ছোট ভাইয়ের লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। একপর্যায়ে তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকেও একই হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। তাঁকেও মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।
মৃত মালেকের স্ত্রী আকলিমা খাতুন বলেন, রাতে ছোট ভাইয়ের মৃত্যুর খবর মালেককে বলা হয়নি। ভোরে ঘুম ভাঙার পর তিনি জানতে পারেন। প্রতিবেশীর বাড়িতে রাখা ছোট ভাইয়ের লাশ দেখতে ছুটে যান। সেখানে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই তিনি মারা যান।
খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান বলেন, মারা যাওয়া দুই ভাইয়ের মধ্যে ছোট ভাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। শুনেছি, ছোট ভাইয়ের লাশ দেখে বড় ভাইও অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকেও হাসপাতালে আনা হয়েছিল। তবে হাসপাতালে আনার আগেই তাঁর মৃত্যু হয়।’

Post a Comment

Previous Post Next Post