Header Ads

মায়ের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করল ছেলে

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে নিজ বাড়ির রান্নাঘর থেকে আমেনা খাতুন (৪২) নামে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। আমেনা খাতুন উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা গ্রামের ব্যবসায়ী ইকবাল হোসেনের স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী।
পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আমেনা খাতুন খাবার রান্না করার জন্য রান্নাঘরে যান। ে তাঁর অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে তৌফিক বাড়িতে এসে মাকে ডাকাডাকি করে। একপর্যায়ে রান্নাঘরে গিয়ে দেখে কাঠের আড়ায় রশিতে ঝুলছেন তার মা। তা দেখে চিৎকার করতে থাকে তৌফিক। পরে আমেনা খাতুনের জা আর্জিনা ও ছেলে তৌফিক মরদেহ উদ্ধার করে। দুপুর ১২টার দিকে পুলিশে খবর দেয় স্বজনেরা।
আমেনা খাতুন প্রায় ১০ বছর যাবৎ মানসিক রোগে ভুগছিলেন। বিভিন্ন স্থানে তাঁর চিকিৎসা চলছিল। মাঝেমধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা করতেন তিনি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।
কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয় স্বজনেরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে। পরিবারের সদস্যদের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। মৃত আমেনা খাতুন মানসিক রোগী ছিলেন বলে জানা গেছে।
 

No comments

Powered by Blogger.