Header Ads

লালন স্মরণোৎসবের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ মঙ্গলবার থেকে কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ায় তিন দিনব্যাপী লালন স্মরণোৎসব শুরু হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে লালন একাডেমির সভাপতি ও কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
তিনি বলেন, করোনা মহামারির কারণে গত দুই বছর বাউল সাধক ফকির লালন শাহের আখড়াবাড়িতে স্মরণোৎসব অনুষ্ঠিত হয়নি। এবার এ সংকট কাটিয়ে ওঠায় আজ ১৫ মার্চ (মঙ্গলবার) থেকে তিন দিনব্যাপী উৎসব শুরু হবে। শেষ হবে ১৭ মার্চ।
জেলা প্রশাসক সাইদুল ইসলাম আরো বলেন, উৎসবে লালনের কর্মময় জীবন ও দর্শন নিয়ে আলোচনা, সঙ্গীতানুষ্ঠান ও গ্রামীণ মেলার আয়োজক করা হবে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।
জেলা প্রশাসক বলেন, উৎসবকে কেন্দ্র করে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হচ্ছে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্বে থাকছেন।
বাউল সম্রাট লালন শাহ জীবদ্দশায় ছেঁউড়িয়ার আখড়াবাড়িতে প্রতি বছর চৈত্রের দোলপূর্ণিমার রাতে বাউলদের নিয়ে সাধুসঙ্গ উৎসব করতেন। ১২৯৭ বঙ্গাব্দের ১ কার্তিক তার মৃত্যুর পরও লালন ভক্ত-অনুসারীরা এ উৎসব চালিয়ে আসছেন। কিন্তু করোনার কারণে দুই বছর বন্ধ ছিল এ অনুষ্ঠান।
উদ্বোধনী দিন থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিট থেকে লালন মুক্তমঞ্চে আলোচনা সভা এবং পরে বাউল গানের আয়োজন করা হয়েছে। ১৫ মার্চ প্রথম দিনের আলোচনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার ইসমাইল হোসেন। বুধবার (১৬ মার্চ) দ্বিতীয় দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালনের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) শেষ দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহাবুব উল আলম হানিফ। তিন দিনের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করবেন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও লালন একাডেমির সভাপতি সাইদুল ইসলাম।  
 

No comments

Powered by Blogger.