Header Ads

কিশোর গ্যাং লিডার তামিমের বিরুদ্ধে থানায় ৫টি মামলা ॥ ভেড়ামারায় কিশোর গ্যাং কর্তৃক প্রক্যাশে হামলায় সাংবাদিক পুত্র হাসান গুরুতর আহত

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়া ভেড়ামারা শহরের কাচারীপাড়ায় কিশোর গ্যাং কর্তৃক প্রক্যাশে হামলায় সাংবাদিক পুত্র হাসান ইমাম গুরুতর আহত হয়েছে। হাসান ইমামের উপর হামলায় ভেড়ামারা থানায় ৮জন কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং-১৩ তাং ২১-০৩-২০২২ ইং। কিশোর গ্যাং লিডার তামিমের বিরুদ্ধে ভেড়ামারা থানায় ৫টি মামলা রয়েছে। কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বাদী পক্ষ কে হুমকি প্রদান অব্যাহত রেখে।
ভেড়ামারা থানা সুত্রে জানা গেছে, ভেড়ামারা প্রফেসার পাড়া এলাকার সাংবাদিক হাফিজুর রহমানের ছেলে হাসান ইমাম (২০) শহরের কাচারী পাড়া এলাকায় হেকমত ডাক্তারের বাড়ির সামনে পৌছালে কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা অকথ্যভাযায় গালিগালাজ ও কিলকুষি দিয়ে মারপিট করতে থাকে। ভেড়ামারা শহরের কাচারীপাড়ায় কিশোর গ্যাং এর লিডার হাজী নুর ইসলামের ছেলে তামিম (২০), নওদাপাড়ার শাহাজাহানের ছেলে সাদমান সাকিব সাদু (২১). বামন পাড়া এলাকার শাহিনের ছেলে ছাব্বির (২০), চন্ডিপুরের জনির ছেলে ইথুন (২১),  কাচারীপাড়ার কিবরিয়ার ছেলে কায়ছার (২০), সুমনের ছেলে হিমেল (২১), বামন পাড়ার ডাবলুর ছেলে আলিফ (২১), নওদাপাড়ার মিজানুর রহমান ডাবলুর ছেলে মাহিন (২১) সংঘবদ্ধ হয়ে মোটর সাইকেল যোগে সাংবাদিকের ছেলে হাসান ইমাম কে তুলে নিয়ে কাচারী পাড়াস্থ জগৎ জননী মাতৃ মন্দিরের সামনে নিয়ে যায়।  সাংবাদিকের ছেলে হাসান ইমাম কে ১ নং আসামী তামিরে নেতৃত্বে আম গাছে পাটের রশি দিয়ে বেধেঁ রাখে। উক্ত আসামীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারী ভাবে হামলা চালিয়ে হাসান  ইমাম কে গুরুতর আহত করে। এলাকাবাসী হাসান ইমাম কে উদ্ধার করে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্র ভর্তি করে। সে হাসাপাতালে মৃত্যুর সাথে পাজ্ঞা লড়ছে। কিশোর গ্যাং লিডার তামিমের বিরুদ্ধে ভেড়ামারা থানায় ৫টি মামলা রয়েছে। মামলা নং জি আর ১১/১৯ তাং ১৩-০১-২০১৯ ইং, মামলা নং জি আর ৬০/১৯ তাং ১৩-০৪-২০১৯ ইং, মামলা নং জি আর ১৭০ তাং ৩০-১১-২০১৯ ইং, মামলা নং জি আর ২৬২ তাং ০৪-১২-২০২১ ইং। সর্বশেষ মামলা নং-১৩ তাং ২১-০৩-২০২২ ইং।
ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান জানান, হাসান ইমাম আহত ঘটনায় ভেড়ামারা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার অভিযান চলছে।
 

No comments

Powered by Blogger.