কুমারখালীতে এন,আই,ডি কার্ড পুড়িয়ে দিলো নির্বাচন অফিস

মোশারফ হোসেন ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলাবাসীর হাতে এন,আই,ডি স্মার্ট কার্ড বুঝিয়ে দেওয়ার পর পেপার ল্যামিনেটেড জাতীয় পরিচয় পত্র (এন,আই,ডি) কার্ড আগুনে পুড়িয়ে বশীভূত করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস।
বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার গড়াই নদীর চরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিতান কুমার মন্ডলের উপস্থিতিতে জমাকৃত পেপার ল্যামিনেটেড এন,আই,ডি কার্ড আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়।
উপজেলার যে সকল স্থায়ী নাগরিক তাদের পেপার ল্যামিনেটেড জাতীয় পরিচয় পত্র উপজেলা নির্বাচন অফিসে জমা দিয়ে স্মার্ট এন,আই,ডি কার্ড সংগ্রহ করেছে শুধুমাত্র তাদের জাতীয় পরিচয় পত্র পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিতান কুমার মন্ডল বলেন, স্মার্ট এন,আই,ডি কার্ড ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। ইতিমধ্যে এর সুফল ভোগ করছে দেশের জনগণ।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিরিনা আক্তার বানু জানান, যে সকল উপজেলায় স্থায়ী নাগরিক তাদের এনালগ জাতীয় পরিচয় পত্র জমা দিয়ে স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করেছে তাদের কার্ড গুলোই আজ পুড়িয়ে ফেলানো হলো।
কুমারখালী উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিরিনা আক্তার বানুর সার্বিক তত্তাবধানে পেপার ল্যামিনেডেট কার্ড আগুনে বশীভূত কার্যক্রমে এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মাহমুদুল হাসান,উপজেলা বন-বিভাগের কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম,উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল কর্মকর্তা আলামীন মিয়া সহ অনেকেই।
উল্লেখ্য যে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের এনআইডি উইং ২০১৬ সালের অক্টোবরে স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র উপস্থাপনের কার্যক্রম শুরু করে। স্মার্ট কার্ডে একটি ইন্টারগ্রেট সার্কিট কার্ড (আইসিসি) সংযুক্ত আছে যা চিপ কার্ড নামেও পরিচিত। স্মার্টকার্ডে এ চিপ কার্ড মেশিনের সাহায্যে রিড করা যাবে। সেখানে নাগরিকের সব তথ্য সংরক্ষিত আছে।

Post a Comment

Previous Post Next Post