Random Posts

কুষ্টিয়ায় প্রকৌশলী ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ সরকারি কর্মচারী হয়ে অপরাধমূলক অসদাচরণের মাধ্যমে অবৈধ সম্পদের অর্জন ও দখলের তথ্য পেয়ে কুষ্টিয়া সড়ক বিভাগের সাবেক উপ-সহকারী প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম (৩৫) ও তার স্ত্রী আফরোজা খাতুন মুক্তার (৩২) বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার রাতে কুষ্টিয়া দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে মামলাটি করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুষ্টিয়া দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক জাকারিয়া।
আসামি মনিরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী আফরোজা খাতুন মুক্তা কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর ইউনিয়নের বেড়বারাদি গ্রামের বাসিন্দা। বর্তমান তার পরিবার কুষ্টিয়া শহরের গোরস্থানপাড়া এলাকার ১১/১ হাসান ফয়েজ লেনে বসবাস করেন। মনিরুল ঢাকায় সড়ক উপবিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।
দুদক সূত্রে জানা গেছে, মামলায় আনিত কুষ্টিয়া সড়ক বিভাগের সাবেক উপসহকারী প্রকৌশলী মো. মনিরুল ইসলাম তার কর্মজীবনের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ২ কোটি ৯৭ লাখ ৩১ হাজার ৪৪৯ টাকা ৭০ পয়সার সম্পদ অর্জনের অভিযোগ। জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ আহরণ করেছেন বলে দুদকের প্রাথমিক অনুসন্ধান ও তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়।
মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, অনুসন্ধানকালে তার নিজ নামে এবং তার পক্ষে স্ত্রী আফরোজা খাতুন মুক্তার নামে অর্জিত স্থাবর, অস্থাবর, দায়দেনা ও সম্পদ অর্জনের উৎস-সংক্রান্ত রেকর্ডপত্র পর্যালোচনা করা হয়। তাতে অপরাধমূলক অসদাচরণের মাধ্যমে কর্মজীবনের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ২ কোটি ৯৭ লাখ ৩১ হাজার ৪৪৯ টাকা ৭০ পয়সার সম্পদ অর্জনের তথ্য পাওয়া যায়। ওই সম্পদ অর্জনের উৎসের বিষয়ে মনিরুল সন্তোষজনক ব্যাখ্যা দিতে ব্যর্থ হন।
আসামির দখলে থাকা সম্পত্তির মধ্যে ২ কোটি ৯৭ লাখ ৩১ হাজার ৪৪৯ টাকা ৭০ পয়সার সম্পত্তি জ্ঞাত আয়বহির্ভূত। অপরাধ সংগঠিত হয়েছে বলে প্রতীয়মান হওয়ায় তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়।
২০০৪ সালের দুর্নীতি দমন কমিশন আইনের ২৭(১) ধারা তৎসহ দণ্ডবিধির ১০৯ ধারায় মামলাটি করা হয়েছে। কুষ্টিয়া জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. জাকারিয়া বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন।
কুষ্টিয়া দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. জাকারিয়া বলেন, আইন অনুযায়ী কুষ্টিয়া সড়ক বিভাগের সাবেক উপসহকারী প্রকৌশলী মনিরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী আফরোজা খাতুন মুক্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Post a Comment

0 Comments