কুমারখালীতে বাবা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ছেলেকে যুবলীগ থেকে অব্যাহতি

মোশারফ হোসেন ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর খোলামেলা প্রচার-প্রচারণা করার অভিযোগে এক যুবলীগ নেতাকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ওই যুবলীগ নেতার নাম মেহেদী হাসান। তিনি উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়ন য্বুলীগের আহবায়ক।
রোববার রাতে খোকসা উপজেলা য্বুলীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ ও সাধারণ সম্পাদক মনির হাসান রিন্টুর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তি এ তথ্য জানানো হয়। এনিয়ে উপজেলায় এ পর্যন্ত চার য্বুলীগ নেতাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
তবে অব্যাহতি প্রাপ্ত য্বুলীগ নেতা মেহেদী হাসান অভিযোগ করে বলেন, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুসারে দলের বাইরে নির্বাচন করা যাবেনা। একথা সঠিক। কিন্তু বিশেষ ক্ষেত্রে তা পর্যালোচনা করা যেতে পারে। তাছাড়াও বিনা নোটিশে জেলা বা উপজেলা কমিটি কাউকে সরাসরি অব্যাহতি দিতে পারেনা।
দলীয় সুত্রে জানা গেছে, আগামী ২৬ শে ডিসেম্বর চতুর্থধাপে অনুষ্ঠিত হবে এ উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন। সেই নির্বাচনে জগন্নাথপুর ইউনিয়ন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন য্বুলীগ নেতা মেহেদী হাসানের বাবা আব্দুল্লাহ আল বাকী বাদশা। বাবাকে সাথে নিয়ে খোলামেলা ভোটের প্রচার প্রচারণা করছেন মেহেদী হাসান। যা দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে। তাই তাঁকে শঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে যুবলীগগ থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। পরিবর্তে স্থায়ী অব্যাহতি দেওয়া হতে পারে।
এছাড়াও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কুমারখালি উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সদকী ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মজিদের ভাই রবিউল আউয়াল, সদকী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি কিরণ হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হিরণ হোসেন।
উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হারুন-অর-রশীদ হারুন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে দলীয় নৌকা প্রতীক দিয়েছেন, তাই নৌকার বিপক্ষে যারা যাবে তাদের বিরুদ্ধেই দলীয় হাই-কমান্ডের নির্দেশে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তাই দলের বিরুদ্ধে গিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা করায় জগন্নাথপুর ইউনিয়ন য্বুলীগের আহবায়ক মেহেদী হাসানকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে স্থায়ী অব্যাহতি দেওয়া হতে পারে। উপজেলা কমিটি যদি অনুমোদন দিতে পারে। 

Post a Comment

0 Comments