ভেড়ামারায় মৎস্য চাষিকে দানেজ হত্যা মামলার এক আসামি গ্রেপ্তার ও ধারালো অস্ত্র জব্দ

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার বিলশুকা গ্রামের মৎস্য চাষি দানেজ আলী হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ৯ নম্বর আসামি সাগর প্রামানিক (২৬)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার বিকালে বিশেষ অভিযান চালিয়ে সাগর প্রামানিককে গ্রেফতার করা হয়। সে বিলশুকা ভবানীপুর মাঠপাড়া গ্রামের মামলার ৭ নম্বর আসামি আছান প্রামানিকের ছেলে। এছাড়াও দুই নম্বর আসামি লিমন প্রামানিকের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র রামদা, হাসুয়া, হাতুড়ি, পাইপ ও লোহার রড মামলার আলামত হিসাবে জব্দ করে পুলিশ।
ভেড়ামারা থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রকাশ রায় বলেন, এ মামলায় আমরা সর্বোচ্চ দিয়ে আসামি গ্রেপ্তারে চেষ্টা করে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে একজন আসামি গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। প্রত্যেক  আসামিকে গ্রেপ্তারে একাধিক অভিযান চালানো সহ এখন পর্যন্ত তৎপর রয়েছি। এছাড়াও অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র আলামত হিসাবে জব্দ করা হয়েছে। মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে যা করার  তার সব কিছুই করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।
উল্লেখ্য, ভেড়ামারা উপজেলার বিলশুকা ভবানীপুর গ্রামে জমি, মাছচাষ ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দানেজ আলীর ওপর গত শুক্রবার বিকেলে বিলশুকা ভবানীপুর মাঠপাড়ায় জিয়াসহ তার লোকজন হামলা চালিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পরদিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।এ ঘটনায় দানেজের ছেলে উজ্জল ভেড়ামারা থানায় ১০ জনের নামে হত্যা মামলা করেন।
এঘটনার পর সোমবার মৎস্য চাষি দানেজ আলীর মরদেহ নিয়ে আসামিদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও সড়কে বিক্ষোভ করে গ্রামবাসী। এসময় শতশত নারী-পুরুষ ও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ একাত্মতা জানিয়ে এ মানববন্ধনে  অংশ নেয়।

Post a Comment

0 Comments