কুমারখালী ও খোকসায় চতুর্থ ধাপেও নৌকার ভরাডুবি

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ দ্বিতীয়-তৃতীয় ধাপের মতো চতুর্থ ধাপেও নৌকার প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে। চতুর্থ ধাপে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ১১টি ও খোকসা উপজেলার ৯টি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে কুমারখালীর ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ৩টিতে নৌকা ও ৮টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয় পেয়েছেন। এছাড়া খোকসা উপজেলার ৯টির মধ্যে ৪টিতে নৌকা এবং ৫টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় লাভ করেছেন।
কুমারখালীর বিজয়ীরা হলেন, কয়া ইউনিয়ন পরিষদে আলী হোসেন (আনারস), শিলাইদহ ইউনিয়নে গাজী বিপ্লব (মোটরসাইকেল), জগন্নাথপুর ইউনিয়নে আব্দুল্লাহ আল বাকী বাদশা (আনারস), সদকী ইউনিয়নে মিনহাজুল আবেদিন দ্বীপ (নৌকা), নন্দলালপুর ইউনিয়নে জিয়াউর রহমান খোকন (স্বতন্ত্র), চাপড়া ইউনিয়নে এনামুল হক মঞ্জু (অটোরিকশা), বাগুলাট ইউনিয়নে আজিজুল হক নবা বিশ্বাস (নৌকা), যদুবয়রা ইউনিয়নে মিজানুর রহমান মিজান (নৌকা), চাঁদপুর ইউনিয়নে হাফিজুর রহমান তুষার (মোটরসাইকেল), পান্টি ইউনিয়নে হাফিজুর রহমান (মোটরসাইকেল) ও চরসাদীপুর ইউনিয়নে মেছের আলী খান (আনারস)।
অপরদিকে খোকসার বিজয়ীরা হলেন, ওসমানপুর ইউনিয়নে ওহিদুল ইসলাম ডাবলু (আনারস), জানিপুর ইউনিয়নে হবিবর রহমান হবি (নৌকা), বেতবাড়ীয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বাবুল আখতার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায়, শিমুলিয়া ইউনিয়নে আব্দুল কুদ্দুস (আনারস), শোমসপুর ইউনিয়নে বদর উদ্দিন খান (নৌকা), গোপগ্রাম ইউনিয়নে মোতালেব হোসেন (মোটরসাইকেল), জয়ন্তীহাজরা ইউনিয়নে টিপু (আনারস), আমবাড়ীয়া ইউনিয়নে আকমল হোসেন (চশমা), খোকসা ইউনিয়নে আব্দুল মালেক (নৌকা) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
স্ব-স্ব উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তারা বেসরকারিভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন। কুমারখালী উপজেলার ১১ ইউনিয়নে ১২৩টি কেন্দ্রে ও খোকসার ৯ ইউনিয়নে ১০৮টি কেন্দ্রে রোববার (২৬ ডিসেম্বর) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

Post a Comment

0 Comments