Header Ads

স্বর্ণ চোরাচালানের মামলায় একজনের ১৪ বছর কারাদণ্ড

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ স্বর্ণ চোরাচালানের মামলায় নির্মল দত্ত (৬৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ৩ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।
রোববার (১৭ অক্টোবর) দুপুর ৩টার সময় কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত নির্মল দত্ত কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়া এলাকার মৃত মনিন্দ্র নাথ দত্তের ছেলে।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১ মার্চ বিকেলে কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়া এলাকার নুরুল ইসলাম লেনে আসামি নির্মল দত্তের বাসায় তল্লাশি করে সোনার বার উদ্ধার করে এবং নির্মল দত্তকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১২। তল্লাশি করে র‌্যাব তিনটি বড় ও ৮টি ছোট কাটা স্বর্ণের বার উদ্ধার করে। উদ্ধার ওই স্বর্ণের ওজন ছিল ৩৮৭ দশমিক ৬৫ গ্রাম।
এ ঘটনায় কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ ক্যাম্পের ডিএডি মুজিবুর রহমান কুষ্টিয়া মডেল থানায় তার বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা করেন। পরে মামলার তদন্ত শেষে পুলিশ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ১৩ মার্চ অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।
এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে ১৭ অক্টোবর রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন। সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আদালত এ রায় দেন। এ মামলায় ১০ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়। রায় ঘোষণার পর পরই দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নির্মল দত্তকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী বলেন, মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় নির্মল দত্তকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন বিচারক। পাশাপাশি তাকে ৩ লাখ  টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৬ মাসের সাজার আদেশ দেন বিচারক।

No comments

Powered by Blogger.