বাংলানিউজের ‘বেস্ট রিপোর্টার’ হিসেবে পুরস্কৃত কুষ্টিয়ার সাগর ও জাহিদ

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ দেশের শীর্ষ অনলাইন নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর ‘বেস্ট রিপোর্টার’ হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন গণমাধ্যমটিতে কর্মরত কুষ্টিয়ার দুই কৃতি সাংবাদিক। এরা হলেন কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলার হোসাইন মোহাম্মদ সাগর এবং একই এলাকার মো. জাহিদ হাসান জিহাদ।
হোসাইন মোহাম্মদ সাগর দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম এর ফিচার রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত আছেন। এছাড়া মো. জাহিদ হাসান জিহাদ বাংলানিউজের কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত।
কোটি পাঠকের কাছে মুহূর্তের খবর ৭ দিন ২৪ ঘণ্টা পৌঁছে দিচ্ছে দেশের অন্যতম শীর্ষ অনলাইন নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ‘টিম বাংলানিউজ’ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংবাদটি যেমন সবার আগে পাঠকের কাছে পৌঁছে দেয় তাৎক্ষণিকভাবে, ঠিক তেমনি সমাজের সমস্যা আর সম্ভাবনার পাশাপাশি মানবিক বিষয়ও তুলে আনে সামনে। আর সেসব কাজে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখায় বাংলানিউজের ‘বেস্ট রিপোর্টার’ হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন কুষ্টিয়ার এই দুই কৃতি সন্তান।
জানা গেছে, কাজের বিশেষ স্বীকৃতিস্বরূপ কর্মীদের পুরস্কৃত করে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। তারই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি কাজের স্বীকৃতি হিসেবে এই পুরস্কার দেওয়া হয় তাদের। সম্প্রতি বাংলানিউজ কার্যালয় থেকে তাদের পুরস্কার হিসেবে সম্মাননা পত্র এবং সম্মানী উপহার দেওয়া হয়।
উল্লেখ্য, হোসাইন মোহাম্মদ সাগর দীর্ঘদিন থেকেই সাংবাদিকতার সঙ্গে যুক্ত। এর আগে তিনি গণমাধ্যমে শিশুদের অধিকার তুলে ধরে বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য ইউনিসেফের ‘মীনা মিডিয়া এ্যাওয়ার্ড’ পান। সাগর রাজধানীর স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে সাংবাদিকতা বিষয়ে লেখাপড়া করেছেন। এছাড়া কুষ্টিয়া থেকে প্রকাশিত সাহিত্য বিষয়ক ভাজপত্র ‘তিথিয়া’ সম্পাদনা করেন তিনি। যুক্ত আছেন বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রমের সঙ্গেও।
অপরদিকে কুষ্টিয়ার সকল গণমাধ্যম কর্মীদের মধ্যে তরুণ ও হাস্যোজ্বল সংবাদকর্মী জাহিদ হাসান জিহাদ ২০১৬ সাল থেকে যুক্ত আছেন বাংলানিউজের সঙ্গে। পেশাদারিত্বের সঙ্গে মানবিকবোধে গুণান্বিত জাহিদ কুষ্টিয়া থেকে বাংলানিউজের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে তুলে ধরছেন নিজ জেলার সমস্যা, সম্ভাবনা ও সমসাময়িক সকল তথ্য। বাংলানিউজের পূর্বে তিনি স্থানীয় গণমাধ্যমে কাজ করে বিশেষ সুনাম অর্জন করেছেন। এছাড়া তিনি কৃষি বিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল ‘কৃষিবিডি’ এর মাধ্যমে কৃষি ও কৃষকদের চিত্র তুলে ধরার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন।
 

Post a Comment

0 Comments