কাকলি ও শ্যামলীর মাথা গোঁজার ঠাঁই হলো

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রাম ইউনিয়নে চরবাড়াদী গ্রামে অসহায় ও হতদরিদ্র কাকলি ও শ্যামলীর অবশেষে মাথাগোঁজার ঠাঁই হলো। একটুকরো ঘরের মালিক হলেন তাঁরা। আমরাও পারি একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে তাদেরকে তাদের অর্থায়নে দুই রুম বিশিষ্ট ঘর একটি টয়লেট একটি রান্নাঘর টিউবওয়েল সহ তাদের হাতে আজকে ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন। ঘরের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সভায় সভাপতিত্ব করেন আমরাও পারি সংগঠনের সভাপতি ফয়জুল হাসান রবি।  ঘরের চাবি হস্তান্তর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহি অফিসার দীনেশ সরকার।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( ভেড়ামারা দৌলতপুর )সার্কেল ইয়াছির আরাফাত,চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপন,সহ আমরাও পারি সংগঠনের সদস্য ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, আমরাও পারি একটি সংগঠনের সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান লন্ড।
উপজেলা নির্বাহি অফিসার দীনেশ সরকার বলেন আমরাও পারি সংগঠন একটি ভালো কাজ করেছেন।অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন নিঃসন্দেহে ভালো কাজ আমার তরফ থেকে আগামীতে কোনো সহযোগিতা থাকলে বলবেন আমি অবশ্যই করবো।
 চাঁদগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাফিজ তপন বলেন,আমরাও পারি সংগঠনের কাজকর্ম দেখে আমার খুব ভালো লেগেছে আমার ইউনিয়নে তারা একটি অসহায় মানুষদের ঘর তৈরি করে  দিয়ে একটি মহতী কাজ করেছেন। আগামীতে আমি আপনাদের সঙ্গে থেকে একটা বাড়ি আমি আমার নিজ খরচে তৈরি করে দেব।
 সুবিধাভোগী কাকলি বলেন, আমরা ঘর পে খুব খুশি কারণ আমাদের কোন নিজস্ব ঘর ছিল না আমরা দাদীর কাছে থাকতাম আজ থেকে আমার নিজস্ব ঘর হলো আমরা খুব খুশি হয়েছি। আমরাও পারি সংগঠনর জন্য দোয়া করি।

Post a Comment

0 Comments