লাশ উদ্ধারের ১১ দিন পর ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে গড়াই সেতুর ওপর ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধারের ১১ দিন পর কুমারখালী থানায় মামলা হয়েছে। এতে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদকসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে।
এজাহারে বলা হয়, কুমারখালীর শিলাইদহ ইউনিয়নের নাউথী গ্রামের ব্যবসায়ী ও চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসির উদ্দীন গত ১৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে কুমারখালী থেকে কুষ্টিয়া যাচ্ছিলেন। পথে গড়াই সেতুর ওপর তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ফেলে রেখে যান আসামিরা। আদালতের নির্দেশে শনিবার রাতে হত্যা মামলাটি নেয় থানা। মামলা করেন নিহত ব্যবসায়ী নাসিরের ভাই বছির উদ্দিন।
মামলায় আসামিরা হলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাসেল হোসেন, আফজাল হোসেন, মুক্তার হোসেন, হাবিবুর রহমান ও আলম কাজী।
এজাহারে বলা হয়, শিলাইদহ ইউনিয়নের নাউথী গ্রামের ব্যবসায়ী ও চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসির উদ্দীন গত ১৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে কুমারখালী থেকে কুষ্টিয়া যাচ্ছিলেন। পথে গড়াই সেতুর ওপর তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে ফেলে রেখে যান আসামিরা।
আরও উল্লেখ করা হয়, সেতুর ওপর তাকে পড়ে থাকতে দেখে এক পথচারী পরিবারের সদস্যদের মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানান। পরে তারা উদ্ধার করে নাসিরকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। নাসিরকে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে নেবার সময় তিনি মামলার আসামিদের নাম জানান।
১৫ জুলাই কুমারখালী থানায় ওই ব্যক্তিদের নাম উল্লেখ করে এজাহার জমা দিলে তা ফেরত দেয়া হয় বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়।
কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, আদালতের নির্দেশে মামলা নেয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Post a Comment

0 Comments