পদ্মায় নিখোঁজ দুই কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ফুটবল তুলতে গিয়ে পড়ে নিখোঁজ দুই কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের প্রায় ছয় ঘণ্টা পর বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পদ্মা নদীর আবেদের ঘাট এলাকা থেকে খুলনা থেকে আসা ডুবুরি দল তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। এর আগে দুপুর ১টার দিকে উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের আবেদের ঘাট সংলগ্ন পদ্মা নদীতে পড়ে যাওয়া ফুটবল তুলতে গিয়ে তারা নিখোঁজ হন।
মৃতরা হলেন-ফিলিপনগর কবিরাজপাড়া গ্রামের বাবুল কবিরাজের ছেলে ও মরিচা (পিএম) ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ইউসুফ আলী (১৮) এবং একই কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ও ওই গ্রামের কুমির উদ্দিনের ছেলে সামিরুল ইসলাম সম্রাট (১৭)।
ভেড়ামারা ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা প্রবীর কুমার দেবনাথ ও ফিলিপনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ফজলুল হক কবিরাজ দুই কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইউসুফ আলী ও সামিরুল ইসলাম সম্রাটসহ বেশ কয়েকজন বন্ধু পদ্মার চরে ফুটবল খেলছিলেন। খেলার এক পর্যায়ে ফুটবল পদ্মা নদীতে পড়ে গেলে সামিরুল ও সম্রাট নদীতে নেমে বল তুলতে যান। এসময় প্রবল স্রোতে তারা তলিয়ে যান। খবর পেয়ে স্থানীয়রা নৌকা নিয়ে তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হন। পরে সন্ধ্যা ৬টার দিকে খুলনা থেকে একদল ডুবরি আনা হয়। তারা প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে পদ্মা নদীর আবেদের ঘাট এলাকা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করেন।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দিন জানান, মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments