এবার ৫ মাসের শিশু করোনায় আক্রান্ত

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ ফুটফুটে চেহারা। বয়স মাত্র পাঁচ মাস। এই বয়সেই মায়ের কোলে চড়ে ছোট্ট আয়েশাকে আসতে হয়েছে করোনা পরীক্ষার নমুনা দিতে। অবশ্য ফলাফলে তার করোনা শনাক্ত হয়েছে। মেয়েকে কোলে নিয়ে সদর উপজেলা পরিষদে যান আয়েশার মা। সেখানে শিশুটির রর্‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করোনা হয়। সেই রিপোর্টে তার করোনা পজিটিভ আসে।
এদিকে, আয়েশার দাদা-দাদি, চাচা, বাবা-মা, ভাইসহ পরিবারের সাতজন সদস্য বর্তমানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তারা বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের সঙ্গে যোগ হলো সেও।
সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসক ইনজামুল হক জানান, শিশুটির শরীরে সামান্য জ্বর ছাড়া আর কোনো লক্ষণ নেই।
উপজেলায় প্রতিদিন রর্‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করানো হচ্ছে। সেখানে ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সেলিনা আক্তার চম্পা। তিনি বলেন, রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর শিশুটিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
শনিবার কথা হয় আয়েশার চাচা হাফিজুর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘বুধবার আমাদের পরিবারের সাত সদস্যের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। পরে শিশু আয়েশারও রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তার এখন কোনো উপসর্গ নেই। জ্বর ছিল, তাও চলে গেছে। সে খাওয়া-দাওয়া করছে। বিছানায় শুয়ে খেলছে। পরিবারের অন্যরাও ভালো আছেন।
কুষ্টিয়ায় সবচেয়ে কম বয়সী শিশুর করোনা আক্রান্তের ঘটনা এটি দ্বিতীয়। এর আগে গত ২২ জুন প্রিন্স নামে ৪৬ দিন বয়সী এক শিশু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল। শিশুটি বর্তমানে সুস্থ রয়েছে।
কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম জানান, গত মাসে ৪৬ দিন বয়সী এক শিশু করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল। কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল। শিশুটি সুস্থ হয়ে উঠেছে। এখন অনেক শিশুই করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছে। সময়মতো চিকিৎসা নিলে তারা সুস্থ হয়ে উঠছে। তার ধারণা, আয়েশা নামের পাঁচ বছর বয়সী এই শিশুটি পরিবারের সংস্পর্শে এসে করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments