তাছের ফকিরের দরবার শরীফে মোবাইল চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগ তুলে রাশেদ (৩০) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় একটি দরবার শরীফের ভক্তদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪ জনকে জিঞ্জাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে উপজেলার কল্যানপুর গ্রামের তাছের ফকিরের দরবার শরীফে এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক রাশেদ উপজেলার হরিণগাছী গ্রামের বাসিন্দা সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকালে মোবাইল চুরির অভিযোগে কল্যানপুর দরবার শরীফের ভেতরে রাশেদকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে দরবার শরীফের ভক্তরা। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসতাপালে পাঠিয়েছে।
নিহতের পিতা সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক বলেন, রাশেদ ৫-৬ মাস ধরে কল্যানপুর দরবার শরীফের ভক্ত হিসেবে দরবারেই থাকতো। রোববার দরবার শরীফের লোকজন তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে দরবার শরীফের ভেতরেই ফেলে রাখে। পরে বিকেলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় রাশেদকে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। আমি এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।
এ বিষয়ে রিফাইতপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু বলেন, মোবাইলফোন চুরির অভিযোগে কল্যানপুর দরবার শরীফের লোকজন রাশেদ নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে শুনেছি।
দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) শফিক জানান, নিহত রাশেদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

 

Post a Comment

0 Comments