কেমো নিয়ে ফেরার পথে স্বামীসহ প্রাণ গেল নারীর

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ ফারাহ খাতুন ছিলেন ক্যানসারের রোগী। রাজশাহীর একটি হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। সেখানে কেমোথেরাপি নিয়ে মঙ্গলবার ভোরে স্বামী ও কয়েকজন আত্মীয়ের সঙ্গে মাইক্রোবাসে করে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। পথে খোকসা শেখপাড়া এলাকায় রাস্তায় থাকা কাদায় মাইক্রোবাসের চাকা পিছলে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারান এর চালক।
কেমোথেরাপি নিয়ে পরিবারসমেত মাইক্রোবাসে করে বাড়ি ফিরতে গিয়ে দুর্ঘটনায় স্বামীসহ নিহত হয়েছেন মেহেরপুর সদরের এক নারী। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন চালক ও পরিবারটির চার সদস্য। মেহেরপুর সদর উপজেলার খোকসা গ্রামে মঙ্গলবার ভোরে এই দুর্ঘটনা ঘটে। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ মোহাম্মদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
নিহত ব্যক্তিরা হলেন ফারাহ খাতুন ও তার স্বামী আব্দুস সাত্তার। তাদের বাড়ি মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামে।
পরিবার ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি জানান, ফারাহ খাতুন ছিলেন ক্যানসারের রোগী। রাজশাহীর একটি হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। সেখানে কেমোথেরাপি নিয়ে মঙ্গলবার ভোরে স্বামী ও কয়েকজন আত্মীয়ের সঙ্গে মাইক্রোবাসে করে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।
পথে খোকসা শেখপাড়া এলাকায় রাস্তায় থাকা কাদায় মাইক্রোবাসের চাকা পিছলে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারান এর চালক। মাইক্রোবাসটি গিয়ে ধাক্কা দেয় রাস্তার পাশের একটি গাছে। স্থানীয় লোকজন মাইক্রোবাসের আরোহীদের মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক ফারাহকে মৃত ঘোষণা করেন।
সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে মৃত্যু হয় আব্দুস সাত্তারের। আহত অন্যরা সেখানে এখন চিকিৎসাধীন।

 

Post a Comment

Previous Post Next Post