আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায় স্বামীর চোখ তুলে নিলো স্ত্রী ও তার প্রেমিক

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ স্ত্রীকে অন্য যুবকের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলায় স্বামী মিরাজ হোসেনের (২৮) চোখ উৎপাটনের চেষ্টা চালানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাতে এ ঘটনা ঘটেছে।
মিরাজকে ওই রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কত্যর্বরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। মিরাজ বাংলাদেশ মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড অধিদফতরের চাকরি করেন।
জানা গেছে, মিরাজ লকডাউনে অসুস্থ ছেলে আলিফকে (৭) দেখতে গ্রামের বাড়ি আসেন। ওই সময় তার স্ত্রী ছেলেকে নিয়ে তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিল। মিরাজ সেখানে যান (শ্বশুর বাড়ি) কিন্তু বিনাা কারণে স্ত্রী নুপুর তার সাথে খারাপ আচরণ করেন এবং বিশেষ প্রয়োজনে তার কাছে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাকবিতন্ডা হলে একপর্যায়ে মিরাজ নিজ বাড়িতে চলে আসেন।
ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার রাতে মিরাজ স্ত্রী ও ছেলেকে আনতে শ্বশুর বাড়ি যান। ঘরে ঢুকে স্ত্রীর শোয়ার কক্ষে জনৈক হাবিব নামে এক যুবককে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান। এরপর স্ত্রী ও যুবকের হাবিবের সাথে মিরাজের বাকবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে হাবিব ও নুপুর দুই জনে মিলে মিরাজকে নিচে ফেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ডান চোখ উৎপাটনের চেষ্টা চালানো হয়। এসময় তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশি কয়েকজন এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের ডাক্তার তপন কুমার বিশ্বাস জানান, চোখের বিষয়টি স্পর্শকাতর। অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎস্যার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে বাউফল থানার ওসি (তদন্ত) আল মামুন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Post a Comment

0 Comments