সাংবাদিক পরিচয়ে ও পুলিশের ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায়, গ্রেফতার ৪

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে অভিনব কায়দায় একজন নারী দিয়ে ফোন করে ঘরে ডেকে নিয়ে এসে আটক করে সাংবাদিক পরিচয় ও পুলিশের দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মারপিট করে ২২ হাজার ৫০০ টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ করেছেন এক ভ্যান চালক। ঘটনাটি শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৩ টায় উপজেলার সদকী ইউনিয়নের নারী প্রতারক রেশমা খাতুন ওরফে নুপুরের বাসায় ঘটেছে। ওই ভ্যান চালকের নাম আব্দুল মোমিন। তিনি যদুবয়রা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের মোকাদ্দেস হোসেনের ভ্যানচালক ছেলে।
এঘটনায় ভ্যান চালক মোমিন কুমারখালী থানায় শনিবার একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এক নারীসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন, বাটিকামারা গ্রামের রাজু আহমেদের প্রতারক ছেলে জাহিদ হাসান (২৩), মনির হোসেনের ছেলে ফাহিম (১৯), হেকমতের ছেলে রাকিব (২৪) ও মৃত চুন্নু শেখের মেয়ে রেশমা খাতুন ওরফে নুপুর (২৩)।
মামলার বাদী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত ৫ এপ্রিল মোবাইলে ভ্যান চালক মোমিনের সাথে প্রতারক রেশমার পরিচয় হয়। কথাবার্তার এক পর্যায়ে রেশমার ডাকে সাড়া দিয়ে শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে সদকী ইউনিয়নের বাটিকামারা রেশমার নিজ বাড়িতে প্রবেশ করে মোমিন। এরপর অন্যান্য আসামীরা মোমিনকে ঘিরে ফেলে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্যাপক মারপিট করে মোমিনের কাছে থাকা ভ্যান বেঁচা ২২ হাজার ৫০০ টাকা নিয়ে নেই। পরে মোমিন কুমারখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ১২, তাং- ১০/০৪/২০২১। ধারা - ৩৪২/৩৮৫/৩৮৬/৩২৩/৫০৬/৩৪ পেনাল কোড।
এবিষয়ে মামলা বাদী মোমিন বলেন, আমি একজন ভ্যান চালক। মোবাইল ফোনে রেশমার সাথে পরিচয়। রেশমার ডাকে সাড়া দিয়ে শুক্রবার বিকেলে দেখা করতে আসলে আসামীরা আটক করে কাছে থাকা ভ্যান বেঁচা ২২ হাজার ৫০০ টাকা নিয়ে নেই। এছাড়াও ব্যাপক মারপিট করে কাউকে বিষয়টি না বলার জন্য হুমকি প্রদান করে আসামীরা।
কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান বলেন, এঘটনায় ভ্যান চালক বাদী হয়ে খানায় একটি মামলা দায়ের করেন। আসামীদের গ্রেফতার করে আদালতে সোপার্দ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, চাঁদার ৩ হাজার ২০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments