ভেড়ামারায় ধর্ষনের পর হত্যা অবস্থায় উদ্ধারকৃত তরুণী’র লাশের পরিচয় মিলেছে


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার চন্ডিপুর বটতলা জিকে (গঙ্গা-কপোতাক্ষ) প্রধান ক্যানেল থেকে ধর্ষন ও হত্যা পর বিবস্ত্র অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয় এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধারের ৩ দিন পর শুক্রবার রাতে পরিচয় মিলেছে। ঐ তরুণীর নাম আঁখি আক্তার (২১)। সে রাজবাড়ি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুরা গ্রামের আলম মিঞার মেয়ে। বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে ভেড়ামারা উপজেলার চন্ডিপুর এলাকার জিকে প্রধান ক্যানেলের তীর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

ভেড়ামারা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনির জানান, ক্যানেলের পানিতে তরুণীর মরদেহটি দেখে থানায় খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঐ তরুণীর নাম আঁখি আক্তার (২১)। সে রাজবাড়ি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুরা গ্রামের আলম মিঞার মেয়ে। বেশকিছু দিন ধরে আঁখি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা এলাকায় বসবাস করছে বলে তার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। মেয়ের মর্মান্তিক মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে আঁখির বাবা ভেড়ামারা থানায় আসার পর পুলিশী সহযোগিতায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে থাকা লাশের সনাক্ত করে। পরবর্তীতে বিষয়টি আদালতকে অবহিত করার পর লাশ ভিকটিমের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পুলিশ অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে এই নৃশংস হত্যাকান্ডের মূল কারন ও হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে নিরলসভাবে কাজ করছে।

Post a Comment

Previous Post Next Post