Header Ads

চাল আত্মসাতের মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ জাল ভিজিডি কার্ডের মাধ্যমে চাল আত্মসাতের মামলায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার রিফাইয়েতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবুকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকালে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এনামুল হক আসামির জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে, গত ১৭ নভেম্বর রিফায়েতপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা মো. মুন্না ওই আদালতে মামলাটি করলে বিচারক দৌলতপুর থানার ওসিকে এজাহার হিসেবে নথিভুক্ত করতে নির্দেশ দেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, রিফাইয়েতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু ওই ইউনিয়নের বাসিন্দা রুবিনা খাতুনের ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করে তার (রুবিনা) নামে একটি ভিজিডি কার্ড তৈরি করেন। ওই চেয়ারম্যান রুবিনার ভিজিডি কার্ডের বিপরীতে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে বরাদ্দ হওয়া সরকারি চাল নিয়মতি উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন। রুবিনা এ ব্যাপারে কিছুই জানতেন না।
এ ব্যাপারে সংবাদ প্রকাশ হলে তিনি স্থানীয় মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার অফিসে গিয়ে জানতে পারেন তার নামে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের ভিজিডি কার্ড রয়েছে। সেই কার্ডে নিয়মিত চাল উত্তোলন হয়ে আসছে। তার কার্ড নম্বর ৫১।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারীর পক্ষে তার ভাই মো. মুন্না চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে এজাহারভুক্ত করার জন্য দৌলতপুর থানার ওসি জহুরুল আলমকে নির্দেশ দেন।
এই মামলায় চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম সংশ্লিষ্ট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে জামিন আবেদন খারিজ করে তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

No comments

Powered by Blogger.