কুষ্টিয়ায় তিন কার্য দিবসে ধর্ষণ মামলার রায় \ সুপার আব্দুল কাদেরের আমৃত্যু যাবজ্জীবন কারাদন্ড


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার আলোচিত মাদ্রাসাছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মাত্র তিন কার্যদিবসে রায় দিলেন আদালত। রায়ে আসামি মাদ্রাসা সুপার আব্দুল কাদেরকে যাবজ্জীবন (আমৃত্যু) কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা, আনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় আসামির উপস্থিতিতে এ রায় দেন কুষ্টিয়ার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান।

মামলার এজাহারে জানা যায়, কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের স্বরূপদহ চকপাড়া এলাকার সিরাজুল উলুম মরিয়ম নেসা মাদ্রাসার সুপার  মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে আব্দুল কাদের (৪৫) প্রতিষ্ঠানের অষ্টম শ্রেণির ওই আবাসিক ছাত্রীর ওপর নির্যাতন চালিয়ে আসছিলেন। মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুল কাদের মেয়েটিকে নিজ কক্ষে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন। রাত ৮টার দিকে মেয়েটিকে নিজ কক্ষে ডেকে দ্বিতীয় দফা ধর্ষণ করেন তিনি। সুপার বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য মেয়েটিকে শাসিয়ে দেন।  এ বছরের ৫ অক্টোবর সোমবার বিষয়টি ওই ছাত্রী তার এক সহপাঠীকে জানায়। ওই সহপাঠীর মাধ্যমে সংবাদটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে বিক্ষুব্ধ স্থানীয়রা মাদ্রাসায় হামলা ও ভাংচুর করে। এলাকাবাসী আব্দুল কাদের কে আটক করে থানায় সোর্পদ দেয়। 

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পিপি এ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম বলেছেন আদালত নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৯/১ ধারা মোতাবেক এ রায় প্রদান করেছেন। 

Post a Comment

0 Comments