কুষ্টিয়ায় অ্যাম্বুলেন্স দুর্ঘটনায় ৫ নিহতের পরিচয়


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার বিত্তিপাড়ায় ট্রাক-অ্যাম্বুলেন্স সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরও তিনজন। হতাহত সবাই অ্যাম্বুলেন্সের যাত্রী। মঙ্গলবার দুপুর ৩টার সময় কুষ্টিয়ার ইবি থানার লক্ষীপুর বিত্তিপাড়ার ১১ মাইল ব্রিজের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার মশাগুনি গ্রামের শফি উদ্দিন মোল্লার ছেলে টিপু সুলতান (৩৬), আব্দুস সাত্তারের ছেলে মফিজ উদ্দিন (৪০), মফিজ উদ্দিনের স্ত্রী আরবী বেগম (৩৫), তার ছেলে ইফাত (১৬) এবং যশোর কোতয়ালী থানার বিরামপুর এলাকার কাশেম আলী শেখের ছেলে আলীম হোসেন (২৮)। রাতে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে থাকা মরদেহগুলো শনাক্ত করেন নিহত নারী আররী বেগরে খালাতো ভাই স্বপন ও তাদের স্বজনেরা। এ দুর্ঘটনায় গুরুর আহত হয়েছেন কাশেম আলীর ছেলের ইনসান আলী অবস্থা আমংকা জনক।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহমান জানান, পাবনার হেমায়েতপুরের মানসিক হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে আরবী বেগম নামের এক নারী রোগীকে নিয়ে পরিবারের সদস্যরা অ্যাম্বুলেন্সে করে নড়াইল যাচ্ছিলেন। ইফাত নামের যাত্রীবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি পথিমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে একটি মাইক্রোবাসকে অতিক্রম করতে গেলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বিএডিসির বীজবাহী ট্রাকের সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন অ্যাম্বুলেন্সটির চালক টিপু সুলতান, রোগী আরবী বেগম, রোগীর স্বজন মফিজ উদ্দিন, ইফাত ও আলী আহম্মদ। এসময় গুরুত্বর আহত অবস্থায় ইনসান আলীকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ বলেন, স্থানীয়দের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে আমরা দ্রæত ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার করি। সংঘর্ষের ফলে গাড়ীটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট ওয়াহিদ জানান, নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করা হলেও চালক ও চালকের সহকারী পলাতক রয়েছে।

এ ঘটনায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিহতদের স্বজনদের খোঁজ খবর নিতে যান কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুল ইসলাম।

কুষ্টিয়া পুলিশ সুপার এস এম তানভির আরাফাত জানান, ময়না তদন্ত শেষে ৫ জনের লাশ তাদের পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়।  

Post a Comment

0 Comments