ভেড়ামারার বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বানাত আলী আর নেই


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক 

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বানাত আলী (৮৬) বার্ধক্যজনিত কারণে গতকাল কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। 

তাঁর গ্রামের বাড়ি বাহাদুরপুর ইউনিয়নের গোঁসাই পাড়া গ্রামে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। তাঁর জানাজা নামাজে সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক শহিদুল ইসলাম, ভেড়ামারা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান মিঠু, ভাইস চেয়ারম্যান বুলবুল হাসান পিপুল, সাবেক উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান আলী, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম , বাহাদুরপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশিকুর রহমান ছবি ,সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল রানা পবন, জুনিয়াদহ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ শিহাবুল ইসলাম, চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জানবার হোসেন, ভেড়ামারা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রাজা, ভেড়ামারা আদর্শ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান, বাহাদুরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শামীম আহমেদ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ কয়েক হাজার লোক অংশ নেন। 

শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও শোক জানিয়েছেন, সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ডক্টর এম আলাউদ্দিন, সাবেক সংসদ সদস্য ও কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সভাপতি মেহেদী আহমেদ রুমী, সাবেক সংসদ সদস্য ও কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন, সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান হাবিব লিংকন, অবসরপ্রাপ্ত যুগ্ম সচিব মোঃ রফিকুল ইসলাম, রাজশাহী নিউ ডিগ্রী সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডক্টর অলিউল আলম, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ তহুর আহমেদ হিলালী, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগরী মহিলা দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট তৌহিদুল ইসলাম আলম, জেলা জাসদের পক্ষ থেকে শোক বার্তা জানিয়েছেন জাসদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন। এছাড়া ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃবৃন্দ মরহুমের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও শোক জানিয়েছেন।

উলে¬খ্য, বিজেএম কলেজের অধ্যক্ষ আসলাম উদ্দিনের চাচা মরহুম বানাতে আলী ১৯৭৩ সালে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে ইউনিয়ন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং ১৯৭৭ সালে দ্বিতীয় স্থানীয় সরকার নির্বাচনে তিনি বাহাদুরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং একটানা ৭বছর চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৮ সালের ১সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি গঠিত হলে তিনি বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং মৃত্যুর আগ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮১ সালে তাঁর প্রথম স্ত্রী মারা গেলে তিনি দ্বিতীয় করেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী, ১৫ জন ছেলেমেয়ে, নাতি নাতনি ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। 

Post a Comment

0 Comments