কুষ্টিয়ায় ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানার গৃহবধূ ধর্ষণ মামলায় জুয়েল (৩২) নামের এক যুুবকের যাবজ্জীবন কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা অর্থন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান আদালতে আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত জুয়েল কুমারখালী উপজেলার সদরপুর গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ওই গৃবধূর স্বামী কর্মসূত্রে বাড়ির বাইরে থাকায় জুয়েল প্রায়ই কুপ্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতো। ২০১৯ সালের ৩ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টায় স্বামীর অনুপস্থিতিতে ঘর থেকে বেড়িয়ে ওয়াশরুমে প্রবেশকালে জুয়েল ওই গৃহবধূর গলায় ছুরি ধরে। পরে ঘরের ঢুকে ধর্ষণ করে। এ সময় চিৎকার করে ওঠায় নিকটস্থ প্রতিবেশীরা ঘটনা দেখে ফেলে। আশপাশের লোকজন জড়ো হওয়া দেখে ধর্ষক জুয়েল পালিয়ে যায়।
এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে জুয়েলের নামে কুমারখালী থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে জুয়েলের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।
কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ বিশেষ আদালতের সরকারি কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুল হালিম জানান, ধর্ষণ মামলাটির চার্জ গঠন ও শুনানি শেষে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হয়। জুয়েলকে যাবজ্জীবন কারান্ডসহ এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সাজার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

Post a Comment

0 Comments