ভেড়ামারা পৌরসভা কে নিয়ে যুবলীগ নেতা রানার ভাবনা!

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ “রানার ভাবনাই আগামীর পৌরসভা বা ভেড়ামারা পৌরসভা কে নিয়ে যুবলীগ নেতা রানার ভাবনা”। যেটায় বলি না কেন। ভেড়ামারা পৌরসভাকে নিয়ে রানার ছোট্র সাক্ষাৎকারে উঠে আসা ভাবনা সময়োচিত। “আসলে বাসযোগ্য পৌরসভা গড়ে তুলতে টাকা নয়, সদিচ্ছা প্রয়োজন। পৌরবাসীর কাছে মেয়রের দায়বদ্ধতা ও ভালোবাসার মুল্যায়ন কি হতে পারে?
পৌরবাসী চাই শান্ত, সুন্দর, মনোরম, দূষণমুক্ত পরিবেশের মধ্যে সুবিধা সম্বলিত বাসযোগ্য একটি আধুনিক, দৃষ্টিনন্দন শহর।
.আহাদুজ্জামান রানা কেন্দ্রীয় ছাত্র লীগের সাবেক ছাত্রনেতা ও উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আহাদুজ্জামান রানা’ পৌরসভাকে নিয়ে তার মূল্যবান ভাবনা ও পরিকল্পনার কিছু অংশ পৌরবাসীর সামনে সাংবাদিকের এক সাক্ষতকারে তুলে ধরেছেন।
রানার ভাবনাই আগামীর পৌরসভা ঃ
১. পৌরসভার মধ্যে ময়লা ফেলার ভাগাড় তৈরি করা। যেন নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ও আবর্জনা ফেলতে পারে। সেই সাথে নিদিষ্ট স্থানে ডাষ্টবিন তৈরি করা অর্থাৎ প্রতি ওয়ার্ডে ৯টি করে ডাষ্টবিন তৈরি করা।
২. প্রতিটি ওয়ার্ডে কমপক্ষে ২ জন করে পরিছন্নতা কর্মী নিয়োগ দেওয়া। তাদের কাজ প্রতিদিন ময়লা সংগ্রহ করে নিদিষ্ট জায়গায় তারা ময়লা নিয়ে গিয়ে ফেলবে।
৩.ফুটপাত দখলমুক্ত করা। মানুষ যেনো স্বাচ্ছন্দ্যে ফুটপাত ব্যবহার করতে পারে ও মানুষের চলাচলে অসুবিধা না হয়। এর জন্য প্রধান রাস্তার দু’ধারে পরিকল্পনা মাফিক ফুটপাত নির্মাণ করা।
৪.শহরের মধ্যে একটি সেন্ট্রাল ড্রেন নির্মাণ করা। এই ড্রেনেজ ব্যবস্থা আধুনিক ও পরিকল্পনা মাফিক ভাবে তৈরি করা। আঞ্চলিক শাখা ড্রেনগুলোর সাথে সেন্টাল ড্রেনের সাথে সংযোগ থাকা।
যেন জলবদ্ধতার আগেই বৃষ্টির পানি দ্রæততম সময়ে নদীতে চলে যেতে পারে এবং বাসাবাড়ি থেকে নির্গত পানি নিষ্কাশন দ্রুত হয়।
৫.পৌরসভার মধ্যে যেসকল জলাশয় রয়েছে, সেগুলো দখলমুক্ত করে পুনঃখনন করা। যেন জলাশয় গুলো সারা বছর পানি ধারণ করতে পারে এবং সচ্ছ, পরিস্কার পানি মজুদ থাকে। সেই সাথে এর চারিদিকে হাটার রাস্তা তৈরি করা। জলাশয় পাড়েতে গাছ ও ফুলের বাগান তৈরি করা। এখানে সাধারণ মানুষ বিশেষ করে বয়স্করা যেন সকালে ও বিকালে হাটতে পারে। সেই সাথে চারিদিকে বসার বেঞ্চ নির্মাণ করা।
৬.শিশুদের বিনোদনের জন্য আধুনিক ও প্রাকৃতিক সংমিশ্রণে মনোরম পৌর পার্ক নির্মাণ করা।
আহাদুজ্জামান রানা বলেন,এগুলো আমার ভাবনার কিছু অংশ মাত্র! ভাবছেন ভোটের আগে সবাই ভুরি ভুরি প্রতিশ্রæতি দেয়। ভোটের পর বাস্তবায়ন করে না। এমন প্রশ্নের উত্তরে;
আহাদুজ্জামান রানা মনে করেন, আসলে এগুলো করতে টাকা মুখ্য বিষয় নয়। চাই সদিচ্ছা ও আন্তরিকতা ও জনপ্রতিনিধি শুধু জনতার সেবক, সেই কথা মনে রাখা।
একটি মনোরম, আধুনিক, দূষণ মুক্ত ছোট্ট অথচ সুন্দর দৃষ্টিনন্দন পৌরসভা গঠনের মাধ্যমে যে কোন জনপ্রতিনিধি হতে পারেন, পৌরবাসীর অন্তর গভীরের স্থায়ী বাসিন্দা। এগুলো রানার শুধু ভাবনা নয়। অনেক পৌরবাসীর মধ্যেও এমন ভাবনা রয়েছে।
একজন পৌর নাগরিক হয়ে আহাদুজ্জামান রানা বলেন, ভেড়ামারা পৌরসভাকে নিয়ে সপ্ন দেখি, অনেক আগে থেকেই। আপনাদের ও আমার ভাবনার সপ্নের পৌরসভা সাজাতে ও বাস্তবায়ন করার এখনই সময় তা করতে চাই।
যুবলীগ নেতা আহাদুজ্জামান রানা পৌরসভাবাসীসহ সকলের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

Post a Comment

0 Comments