কুমারখালিতে সরকারি চাল আত্মসাৎ \ চেয়ারম্যান বরখাস্ত

কুমারখালি প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টুকে সরকারি চাল আত্মসাতের দায়ে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।
 বুধবার বিকেলে সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিবুল ইসলাম।
রাজিবুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে চাপড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টুকে সাময়িক বরখাস্তের একটি চিঠি পেয়েছি। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়েছে, স্থানীয়ভাবে তদন্তে রিন্টুর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের জুন মাসে চাপড়া ইউপির চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টুর বিরুদ্ধে ২৪৯ বস্তা (৭.৪৭০ মে টন) সরকারি চাল (ভিজিডি) আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর বিষয়টি তদন্ত করা হয়।
চাপড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টু বলেন, বর্নিত অভিযোগ সত্য নয়। জুন/২০১৮ এর ভিজিডি চাউল কার্ডধারীদের মাঝে গত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে বিতরণ করা হয়েছে।
জানা গেছে, চলাচলের উপযোগী রাস্তা না থাকায় ২০১৮ সালের জুনের ভিজিডি বিতরণে বিলম্ব করেন চেয়ারম্যান। পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বারবার তাগাদ দিলে গত ০৮/১১/২০১৮ ইং তারিখে ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের অফিস সহকারীর উপস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট কার্ডধারীদের মাঝে চাল বিতরন করা হয়।
এ বিষয়ে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নাজনীন ফেরদৌস বলেন, সময় মতো চাল বিতরণ না করায় সেসময় চেয়ারম্যান সাহেবকে আমি ও ইউএনও স্যার বারবার তাগাদ দেয়ার পর চেয়ারম্যান চাল বিতরণ করেন। ট্যাগ অফিসার ছিলেন উপজেলা সমবায় অফিসার আনিসুর রহমান। সেখানে আমার অফিসের অফিস সহকারিও উপস্থিত ছিলেন।
চাল বিতরণকালে নিয়োজিত ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা সমবায় অফিসার আনিসুর রহমান বলেন, চাল বিতরণের সময় আমি ছিলাম, চাল বিতরণ করা হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments