নেশার টাকার জন্য ভিক্ষুক নারীকে হত্যার অভিযোগ

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাদক কেনার টাকা দিতে অস্বীকার করায় ছাইদা খাতুন (৩৪) নামে এক ভিক্ষুক নারীকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ওই ভিক্ষুকের আপন ভাইয়ের ছেলে রনি প্রামাণিকের (৩০) বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বিকালে মরদেহের ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ। নিহত ছাইদা খাতুন মিরপুর উপজেলার তেঘরিয়া ক্যানেলপাড়া এলাকার মৃত কিতাদী প্রামানিকের মেয়ে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্বামী পরিত্যক্তা ছাইদা খাতুন তার বড় ভাই ইউনুস প্রামাণিকের বাড়িতেই দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করছেন। তিনি ভিক্ষাবৃত্তি করে চলতেন। সেই ভিক্ষার টাকা নিতে প্রায়ই ইউনুসের বড় ছেলে মাদকাসক্ত রনি প্রামাণিকের সাথে তার বিবাদ হয়।
সোমবার সকালে ছাইদা খাতুনের কাছ থেকে এক হাজার টাকা কেড়ে নিতে যায় রনি। ছাইদা খাতুন টাকা দিতে অস্বীকার করায় রনি তাকে বেধড়ক মারধর করে। এক পর্যায়ে ছাইদা খাতুনের গলার উপরে পা দিয়ে শ্বাসরোধ করে।
পরে প্রতিবেশিরা ছাইদা খাতুনের কোনো সাড়া না পেয়ে ঘরে গিয়ে তাকে মৃত অবস্থায় পায়। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।এ ঘটনার পর থেকে রনি প্রামাণিক (৩০) পলাতক।
মিরপুর থানার এসআই আতিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। ময়না তদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

Post a Comment

0 Comments