ভেড়ামারায় পান বরজের সাথে শত্রুতা \ দেড় লাখ টাকা ক্ষতি

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার জুনিয়াদহ ইউনিয়নের মির্জাপুর গ্রামের এক পান চাষীর ৩০ পিলি পান গাছের গোড়া কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। যার আনুমানিক বাজার মুল্য দেড় লাখ টাকা। গত শুক্রবার রাতে পান গাছের গোড়া কেটে দেওয়া হয়েছে।
পান চাষী মাহাবুল মোল্লা এ বিষয়ে ৩ জনকে অভিযুক্ত করে ভেড়ামারা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।
তিনি অভিযোগ পত্রে মির্জাপুর গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের ছেলে আসলাম আলী ও আজমল আলী এবং মৃত আফাজউদ্দিনের ছেল গিয়াসউদ্দিনের নাম উল্লেখ  করেছেন। আাসামিরা বাবা ছেলে বলে জানা গেছে।
মাহাবুল মোল্লা বলেন, ৩০ পিলি পান গাছের গোড়া কেটে দিয়েছে শত্রুতা করে। বরজে ধরা পান বিক্রির সময় হয়ে এসেছিল।
এতে আমার ১লাখ ৫০হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে। তাছাড়া  নতুন করে পান গাছ লাগানো ও পরিচর্যা করে এই পর্যন্ত আসতে আরো লাখ টাকা লাখবে এ ক্ষতি পোষাবার নয় অভিযুক্তরা ভাবনা চিন্তা করেই এমন ক্ষতি করলো আমি এর বিচার চায়। তিনি জোর দিয়ে বলেন অর্থনৈতিক ক্ষতিগ্রস্ত করতে এমন কাজ করেছেন।
স্থানীয়রা বলেছেন, ক্ষতিগ্রস্থ পানচাষী এর দাবি এতে তার কমপক্ষে দেড় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। তাছাড়া বরজ আবার গড়ে তুলতে লাখখানিক টাকা লাগবে।  তার এই বরজ
গ্রামের বাসিন্দারা জানান, এই ক্ষতি কোনো ভাবেই মানা যায় না। পান গাছগুলো কৃষকের কাছে তার সন্তানের মতো। সেভাবেই তিনি বড় করেছেন। যারা বরজের ক্ষতি করেছে প্রশাসন তাদের  আইনের আওতায় নিয়ে আসবেন এটাই সকলের প্রত্যাশা।

Post a Comment

0 Comments