প্রেমিকা কে বিয়ের কথা বলে ডেকে ধর্ষন ।। থানায় মামলা ।। আটক ১ জন

কুমারখালী প্রতিনিধি।। কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালীর উপজেলা শিলাইদহ ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্ৰামের হাবিবুর রহমান হাবিবের মেয়ে মোছাঃ হাফিজা খাতুন ওরফে (আদিরা) কে ০৮-০৭-২০২০ ইং তারিখে রাত আনুমানিক রাত ৮ টার দিকে   বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে  মোঃ জয় ,পিং- মোঃ জালাল শেখ, সাং মির্জাপুর। ধর্ষিতা এজাহারে বলেন হাসিমপুর খুনকারতলা মোড়ে যেতে বলে জয়। আসামি জয়, মামুন,ভ্যান যোগে কামাড়পাড়া চরে নিয়ে গিয়ে বলেন আজ রাতেই  বিয়ে হবে। এমন কথা বলে জয় ও মোঃ মামুন (২৪) পিং- মৃত কামরুদ্দিনের ,  রাসেল(৩০), পিং- আশরাফ আলী,মোঃ বাদশাহের ছেলে নাসিম(২০) মোঃ নান্নু(৪০) পিং- হানেফ প্রামাণিক , তারা মোট,  ৫ জন জোড় পূর্বক ধর্ষণ করে।ধর্ষিতা কে অসুস্থ অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় সবাই। ধর্ষিতা মহিলা মেম্বার  জাহানারা কে বিষয়টি জানালে জাহানারা মেম্বার তার ছেলে মামুন কে বাঁচাতে ধর্ষিতা কে জয়ের সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার কথা বলে কৌশলে নিজের কাছে রাখে বেশ কিছু দিন। এক সময় ধর্ষিতা বুঝতে পারে তার সঙ্গে বিয়ের কথা বলে প্রতারনা করে হচ্ছে। যার কারণে বিলম্ব হয়েছে বলে এজাহারে উল্লেখ করে ধর্ষিতা। ২৪ জুলাই শুক্রবার ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে কুমারখালী থানায় সশরীরে এসে মামলা দায়ের করে। মামলা নং ২২ তাং ২৪/০৭/২০২০।
এ ব্যাপারে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মজিবুর রহমান বলেন গত ৮( জুলাই ) আদিবা নামে একটি মেয়ে গ্যাং রেপ হয় , এই বিষয়ে ধর্ষিতা কে কোন সন্ধান না পাওয়ায় কারনে ব্যবস্থা নিতে পারেননি । এখন বাদী নিজে এসে থানায় এজাহার দেবার পর ধর্ষন মামলা হয়েছে ।এবং ধর্ষন মামলা রাসেল নামে এক জন কে আটক করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতার করতে অভিযান চলমান রয়েছে।

Post a Comment

0 Comments