কুমারখালির পদ্মায় নৌকাডুবিতে ৪ শ্রমিক নিখোঁজ \ ভেড়ামারায় শোকের মাতম


চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকায় পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় চারজন শ্রমিক নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও নয়জন শ্রমিক সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও অপর চারজন পানির প্রবল তোড়ে ভেসে নিখোঁজ হন। মঙ্গলবার সকালে পাবনা জেলার শেষে সীমানা সংলগ্ন কুষ্টিয়ার কুমারখালীর চরসাদিপুর এলাকায় পদ্মা নদীতে এ নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। চারজন শ্রমিক নিখোঁজ হওয়ায় ভেড়ামারায় শোকের মাতম। নিখোঁজরা হলেন কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলার জামালপুর গ্রামের জুয়েল(৩৫), জাকির(৩২), শরিফুল(৩৫) ও জুবায়ের(৩৩)। কুষ্টিয়া ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, সকাল ১০ টার দিকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার ১৩ জন শ্রমিকসহ ইঞ্জিনচালিত একটি নৌকা পদ্মা নদী পাড়ি দিয়ে কুমারখালী অভিমুখে আসছিল। এসময় বৈরী আবহাওয়া এবং প্রবল ঢেউ ও স্রোতের টানে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এতে ১৩ জন শ্রমিকের মধ্যে নয় জন সাঁতরে প্রান রক্ষা করতে সক্ষম হলেও বাঁকী চার শ্রমিক পানির তোড়ে ভেসে নিখোঁজ হন। খবর পেয়ে পাবনা ও কুমরাখালী ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করেন। তবে ভরা বর্ষায় নদীতে প্রচন্ড ঢেউ ও তীব্র বেগে পানি প্রবাহের কারণে উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে। দুর্ঘটনাস্থল থেকে নিখোঁজ শ্রমিকরা ভেসে দুরবর্তী কোথাও চলে গেছে বলে ফায়ার সার্ভিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন। নিখোঁজ শ্রমিকরা কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার অন্তর্গত জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা। নিখোঁজরা হলেন কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলার জামালপুর গ্রামের জুয়েল(৩৫), জাকির(৩২), শরিফুল(৩৫) ও জুবায়ের(৩৩)। এদিকে নিখোঁজদের উদ্ধারে রাজশাহীর ডুবুরি টিমকে খবর দেয়া হয়েছে। কিন্তু এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা নিখোঁজদের উদ্ধার করেতে পারেনি। কুষ্টিয়া ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, উদ্ধার তৎপরতা চলছে। খুলনা থেকে ডুবুরি দল পৌঁছানোর পর সমন্বিতভাবে জোর উদ্ধার কাজ শুরু হবে বলে তিনি জানান। কুমারখালী উপজেলার নির্বাহী অফিসার রাজিবুল ইসলাম খান জানান, নিখাঁজদের উদ্ধারের বিষয়টি অতি গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। কুমারখালী ও পাবনার ফায়ার সার্ভিস টিমসহ রাজশাহীর ডুবুরি দল এসে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে বলে তিনি জানান।

Post a Comment

Previous Post Next Post