খোকসা ইউএনওসহ আরও ২০ জন করোনায় আক্রান্ত

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ (ইউএনও) নতুন করে ২০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন।
আক্রান্ত ইউএনও হলেন খোকসা উপজেলায় সদ্য যোগ দেওয়া মেজবাহ উদ্দীন। কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ১২৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ২০টি পজিটিভ পাওয়া যায়।
বুধবার রাত ৯টার সময় কুষ্টিয়া সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, নতুন আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় আটজন, দৌলতপুরে ছয়জন, কুমারখালীতে পাঁচজন ও খোকসাতে একজন। এ নিয়ে কুষ্টিয়ায় করোনা রোগী শনাক্ত হলো ২৭৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭১ জন।
খোকসা ইউএনও মেজবাহ উদ্দীন বলেন, তিনি কয়েক দিন আগে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগদান করেছেন। আসার পর তিনি সার্কিট হাউসে থেকে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। প্রতিবেদনে জানতে পারেন তিনি পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। খোকসাতে দায়িত্ব বুঝে নেওবার কথা ছিল। নমুনা দেওয়ায় দায়িত্ব নেওয়া হয়নি।
‘সার্কিট হাউসেই আইসোলেশনে আছি। শরীরে তেমন কোনো করোনার উপসর্গ নেই। সুস্থ আছি। দোয়া করবেন যেন দ্রæত করোনাজয় করতে পারি।’
কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি) সিরাজুল ইসলাম করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়ে হোম আইলোসনে রয়েছেন। ডিসি আসলামের নমুনা নেগেটিভ এসেছে। তারপরও তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন।
সিভিল সার্জন এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, জেলায় করোনা রোগী বেড়েই যাচ্ছে। গত এক সপ্তাহে ১০০ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার থেকে জেলায় ১৮টি এলাকা লাল অঞ্চল চিহ্নিত করে লকডাউন করা হয়েছে। এটা ২১দিন বাস্তবায়ন করা গেলে রোগীর সংখ্যা কমে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

Post a Comment

0 Comments