কুষ্টিয়া বোরো চাউল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন নিয়ে সংশয়

মোশারফ হোসেন কুমারখালী । ঘোষণা করার পরও কুষ্টিয়া জেলার সরকারি খাদ্য গুদামগুলোতে মিল মালিকেরা চাল সরবরাহে অনাগ্রহ দেখাচ্ছে । মিলাররা জানান বাজারে চালের দাম বেড়েছে যার কারণে সরাসরি চাল সংগ্রহ কেন্দ্রে চাল দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। কুষ্টিয়া জেলার ২০২০ সালে সরকারি ভাবে বোরো ধানের চাউল সংগ্রহ অভিযান   এবার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন সম্ভব  হচ্ছে না ।  জেলার সরকারি ভাবে চাউল সংগ্রহ লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩৪ হাজার ৬ শ' ২ মেট্রিকটন । জেলার মিলারদের নিকট থেকে ৩৬ টাকা দরে চাউল ক্রয় করার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছিল।এর মধ্যে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ২৮ হাজার ৫৯ মেট্রিকটন কুমারখালী উপজেলার ১ হাজার ৩ শ' ৯৬ মেট্রিকটন খোকসা উপজেলার ২ শ' ২০ মেট্রিকটন , মিরপুর উপজেলার ২ হাজার ৪ শ' ৬৪ মেট্রিকটন ভেড়ামাড়া উপজেলা ২ শ' ১৮ মেট্রিকটন,দৌলতপুর উপজেলা ২ হাজার ২ শ' ৪৫ মেট্রিকটন বোরো চাউল ।জেলার ৮ টি সরকারি খাদ্য গুদাম মিলারদের নিকট থেকে চাউল সংগ্রহ করবার কথা ছিল।  উল্লেখ্য মিলারা সরকারি ভাবে বোরো চাউল ক্রয় জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চাউল সংগ্রহ করা হবে। কুষ্টিয়া খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মনোয়ারা হোসেন জানান  ইতি মধ্যে জেলার ৮ টি খাদ্য গুদাম মিলারদের নিকট থেকে প্রায় ৫ হাজার মেট্রিকটন চাউল সংগ্রহ করা হয়েছে। আমারা আগষ্ট পর্যন্ত চাউল সংগ্রহ অভিযান চালিয়ে যাব। এর পরেও চুক্তিবদ্ধ মিলাররা চাউল না দিলে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ মোতাবেক   মিলারদের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


Post a Comment

0 Comments