কুষ্টিয়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে গৃহবধু ও শিশু’র মৃত্যু

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ কুষ্টিয়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আরো এক গৃহবধুর  মৃত্যু হয়েছে। অপর দিকে দৌলতপুরে শাওন নামে ৩ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
শিল্পী খাতুন (২৭) বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়। জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে গত ১০ দিন আগে তিনি হাসপাতালে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করে। তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়ায় বলে হাসপাতালের ভর্তির কাগজে উল্লেখ থাকলেও ওই ঠিকানায় তার কোনো স্বজনকে পাওয়া যায়নি।
কুষ্টিয়া হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা. তাপস কুমার সরকার জানান, শিল্পী খাতুন (২৭)  ঠান্ডা জ্বরের পাশাপাশি ওই রোগী ১০ দিন আগে হাসপাতালে আসলে আমরা তাকে করোনা আইসোলেশন ওয়াডে ভর্তি করি। এরপর তার করোনা পরীক্ষা করে রেজাল্ট নেগেটিভ আসে। বুধবার রাতে তিনি মারা যান। তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি-না তা নিশ্চিত হতে আবারো পরীক্ষা করা হবে।
কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে শাওন নামে ৩ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জ¦র ও বমি নিয়ে শিশুটির মৃত্যু হয়। মৃত শাওন দৌলতপুর উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের বৈরাগীরচর গ্রামের জুয়েল প্রামানিকের ছেলে।
শিশুটির মৃত্যুর বিষয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, মৃত শিশুটির পরিবার ও এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোন লক্ষন পাওয়া যায়নি। এমনকি পরিবারের কোন সদস্য ঢাকা ও দেশের বাইরে থাকেন এমনও না। তারপরও সন্দেহ দূর করতে শিশুটির শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআরে পাঠানো হয়েছে।

Post a Comment

0 Comments