করোনার কারণে ঃ কুষ্টিয়ায় হাসপাতালের নার্সকে হুমকি ও ডিউটি করতে মানা

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \  করোনা সংক্রমণ ভীতি ও আতঙ্কে এবার কুষ্টিয়ায় সরকারি হাসপাতালে এক নার্সকে দায়িত্ব পালন না করতে হুমকি দিয়ে ডিউটি করতে মানা করা হয়েছে।
কয়েকজন প্রতিবেশী ওই নার্সের বাড়ির প্রবেশ পথের গেটে দাঁড়িয়ে চিৎকার করে হুমকি প্রদান ও হাসপাতালে ডিউটি করতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। মঙ্গলবার নার্স এই অভিযোগ করেন পুলিশকে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কুষ্টিয়া ২৫০ বেড জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স শারমিন তার পিতার বাড়ি সদর উপজেলার বটতৈল গ্রাম থেকে হাসপাতালে ডিউটি করেন। তার পিতার বাড়ি সংলগ্ন নারী-পুরুষসহ ৫/৭ জনের দুবৃত্ত শ্রেণীর সংঘবদ্ধ দল এসে বাড়ির সামনে জড়ো হয় এবং নার্স শারমিনকে হাসপাতালে ডিউটি করতে নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ হুমকি দেয়া হয়। তাদের নিষেধাজ্ঞা না মানলে তাকে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতেও বলা হয়। করোনা সংক্রমণ ছড়াতে পারে অজুহাতে তাকে হুমকি দেয়া হয় বলে তিনি জানান। এ সময় ওই দুর্বৃত্তরা ওই বাড়ির মেইন গেটে ধাক্কা-ধাক্কিও করে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের এহেন আচরণ ও হুমকিতে নার্স শারমিন ও ওই বাড়িতে বসবাসরতরা আতঙ্ক গ্রস্ত হয়ে পড়েন।
নার্স শারমিনের স্বামীর বাড়ি মেহেরপুরে। চাকরির সুবাদে তার স্বামী অন্যত্র থাকায় তিনি কুষ্টিয়াতে পিতার বাড়ি থেকেই হাসপাতালের ডিউটি করেন। ঘটনার পর বিষয়টি ওই নার্স হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) তাপস কুমার সরকারকে অবহিত করেন। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়।
কুষ্টিয়া ২৫০ বেড জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডাঃ তাপস কুমার সরকার জানান, ঘটনাটি শোনার পর অভিযোগটি কুষ্টিয়া মডেল থানার পুলিশকে জানানো হয়েছে।
কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি গোলাম মোস্তফা জানান, অভিযোগটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নার্সের নিরাপত্তাসহ এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে ওসি জানান।

Post a Comment

0 Comments