ভেড়ামারায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু

শেখ হাসিনা এবং মহাজোট উন্নয়ন ও শান্তির প্রতীক,
 আর সেই কারণেই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক \ জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি বলেছেন, বিএনপি-জামাত ও ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনকে ব্যবহার করে জঙ্গী-রাজাকার-জামাত-আগুন সন্ত্রাসীদের পূর্ণবাসন করছে। হাসানুল হক ইনু বলেন, ঐক্যফ্রন্ট-জামাত-বিএনপির চালচলন দেখে মনে হচ্ছে তারা নির্বাচনে এসেছে উছিলা তৈরী করতে কিভাবে নির্বাচন বানচাল ও অস্বাভাবিক পরিস্থিতি তৈরী করা যায়।শেখ হাসিনা এবং মহাজোট উন্নয়ন ও শান্তির প্রতীক, আর সেই কারণেই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত।
শুক্রবার কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা শহরের কলেজ বাজারে নির্বাচনী সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। নির্বাচনী সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন, ভেড়ামারা প্রেস ক্লাবের সভাপতি প্রভাষক জাহাঙ্গীর হোসেন জুয়েল। বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল আলীম স্বপন, কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম মহাসিন, ভেড়ামারা উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক এস এম আনছার আলী, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি বিটিভি কুষ্টিয়া প্রতিনিধি আব্দুর রশিদ চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক এটিএন বাংলার প্রতিনিধি আল মামুন সাগর, মিরপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ আলী জোয়াদ্দার, ভেড়ামারা প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক আরিফুজ্জামান লিপটনসহ কুষ্টিয়া জেলা,ভেড়ামারা ও মিরপুর উপজেলার সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
কুষ্টিয়া-২ আসনের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমি যদি পুনরায় এ এলাকার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হতে পারি, তাহলে উন্নয়নের ধারা অব্যহত রেখে শান্তি বজায় রাখবো। উন্নয়নের স্বার্থে, সন্ত্রাস মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার আহবান জানান। এসময় উন্নয়নের ১০ বছর নামক একটি চটি বই সাংবাদিকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনে কুষ্টিয়া-২ আসনের জনগনের কাছে আমার নির্বাচনী ওয়াদা ছিল অন্ধকার দূর করবো, কাদা এবং সন্ত্রাস মুক্ত সংসদীয় আসন গড়ে শান্তি প্রতিষ্টা করবো। তিনি বলেন, চরমপন্থী অধ্যুষিত ভেড়ামারা মিরপুর উপজেলা থেকে চরমপন্থী, সন্ত্রাস মুক্ত করে শান্তির ধারা প্রতিষ্টা করেছি। গত ১০ বছরে ভেড়ামারা মিরপুর বাসী শান্তিতে রয়েছে। বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত করেছি প্রতিটি বাড়ি। শতভাগ বিদ্যুতায়িত হয়েছে দুটি উপজেলা। কাদা, জরাজীর্ন রাস্তা পাকা করে কাদামুক্ত করেছি। গ্রাম এখন শহরে পরিনত হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার প্রভুত উন্নয়ন নিশ্চিত করে শান্তির আবাস করে গড়ে তুলেছি ভেড়ামারা মিরপুর কে। দুটি উপজেলায় উন্নয়ন করেছি সমানতলে। কোন বৈষম্য করেনি। তিনি বলেন, ভেড়ামারায় ইপিজেড এবং পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার নির্মান কাজ শুরু হবে।

Post a Comment

0 Comments