ভেড়ামারা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সাম্যবাদী দলের চেয়ারম্যান প্রার্থী কমরেড বাবলুর নির্বাচন বয়কট

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনে (গেজেট বর্হিরভূত) সিডি ও ভোটার তালিকার জন্য ৬১ হাজার টাকা আদায়ের প্রতিবাদ জানিয়ে গতকাল ভেড়ামারা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সাম্যবাদী দলের চেয়ারম্যান প্রার্থী কমরেড আনোয়ার হোসেন বাবলু জেলা পরিষদ নির্বাচনকে প্রহসন মূলক নির্বাচন দাবী করে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর ঘোষনা দেন।
আসন্ন ২৮শে ডিসেম্বর ২০১৬ অনুষ্ঠিতব্য কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল (এম, এল) মনোনীত প্রার্থী ও জেলা সম্পাদক কমরেড আনোয়ার হোসেন বাবলু চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার লক্ষ্যে  গনসংযোগ করে আসছিল। তিনি গতকাল চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জামানত বাবদ ২০ হাজার টাকা ট্রেজারী চালান করেন। চালান কপি নিয়ে বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া নির্বাচনী অফিসে গিয়ে জেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে তার নমিনেসন ফরম চাইলে সিডি ও ভোটার তালিকা বাবদ আরও ৬১ হাজার টাকা অফিসে জমা দেওয়ার কথা বলে ট্রেজারী চালান করতে বলেন কুষ্টিয়া নির্বাচন অফিস। এতে তিনি নির্বাচনী ইস্তেহার অনুযায়ী গেজেট পেপার অনুসারে সমস্ত নিয়ম কানুন এর ভেতর অতিরিক্ত সিডি ও ভোটার তালিকার জন্য ৬১ হাজার টাকা উল্লেখ নেই বলে দাবী করে নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তাদের বুঝালেও তারা নমিনেশন ফরম দেই নাই। এরই প্রতিবাদে সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান প্রার্থী কমরেড আনোয়ার হোসেন বাবলু গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধায় ভেড়ামারা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি লিখিত বক্তেব্যে বলেন, নির্বাচনী ইস্তেহার ও গেজেট পেপারে সিডি ও ভোটার তালিকা বাবদ ৬১ হাজার টাকা দিতে হবে বলে কোথাও উল্লেখ নাই। অথচ জেলা নির্বাচনী অফিসার ইচ্ছা অনুযায়ী অতিরিক্ত ৬১ হাজার অবৈধ টাকা গ্রহণ করে আত্মসাত করার লক্ষ্যে আমার কাছে এই টাকা দাবী করেন। আমি অনেক বুঝালেও তারা আমার নমিনেশন ফরম দেয় নাই। যার কারনে আমার মানসম্মানে আঘাত লাগে। ইতিমধ্যে আমি সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হই নির্বাচন বয়কট করার। নির্বাচনের গেজেট ও ইস্তেহারে উল্লেখিত নিয়ম অনুযায়ী ও সুষ্ঠ আচরণ বিধির মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক এটা সবারকাম্য সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানাতে চাই এমন ভৌতিক সিদ্ধান্তের কারনে আমি ও আমার দল কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ নির্বাচনকে প্রহসন মূলক নির্বাচন বলে আক্ষ্যায়িত করলাম এবং নির্বচন বয়কট করার ঘোষনা করলাম। অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মিরপুর উপজেলা সামবাদী দলের সম্পাদক শাজামানুল হক খাজা, দৌলতপুর উপজেলার সম্পাদক সুমন হোসেন, জুনিয়াদহ ইউনিয়নের সম্পাদক ময়নুল ইসলাম মুকুল, ধুবইল ইউনিয়নের সম্পাদক ফরহাদ হোসেন প্রমুখ।

Post a Comment

0 Comments