ভেড়ামারায় ডায়বেটিকস সমিতি’র ভবন উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু

চেতনায় কুষ্টিয়া প্রতিবেদক ॥ ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নাসিরনগরে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও মন্দির ভাঙচুরের ঘটনা বাংলাদেশের শান্তি বিনষ্টের চক্রান্তের একটি অংশ বলে মনে করেন তথ্যমন্ত্রী এবং জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি। তিনি বলেন, এসব হামলায় জড়িতদের এক চুলও ছাড় দেওয়া হবে না। শনিবার শনিবার দুপুর ১১টার দিকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ডায়াবেটিক সমিতির সম্প্রসারিত ভবনের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
ইনু বলেন, বাংলাদেশে এখনো স্থিতিশীলতা এবং শান্তি বিনষ্টের চক্রান্ত অব্যাহত আছে। এরই অংশ হিসেবে এসব হামলা চালানো হচ্ছে।
‘আমি মনে করি যে,  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সংখ্যালঘুদের ওপরে আক্রমণ, মন্দিরের ওপর আক্রমণ তা বাংলাদেশের শান্তি বিনষ্ট করার, স্থিতিশীলতা নষ্ট করার চক্রান্তেরই একটা অংশ। আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে সরকার আমরা নীতিগতভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করি। একইসঙ্গে এটা পরিস্কার ভাষায় আমরা বলতে চাই বাংলাদেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর আক্রমণকারী কেউই রেহাই পাবে না’, বলেন তথ্যমন্ত্রী।
‘যুদ্ধাপরাধী বা বঙ্গবন্ধুর খুনীরা যেমন রেহাই পায়নি, জঙ্গি সন্ত্রাসীরা যেমন রেহাই পাচ্ছে না তেমনি সংখ্যা লঘু সন্ত্রাসীদেরও একচুল ছাড়ও দেওয়া হবে না, রেহাইও দেওয়া হবে না। এছাড়াও আমরা মনে করি যেহেতু একটা চক্রান্ত অব্যাহত আছে সংবিধানের বিরুদ্ধে, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধে, সেই হিসেবে বিএনপি জামায়াতের ওপর সতর্ক দৃষ্টি রাখা উচিত’, যোগ করেন ইনু।
প্রশাসন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, এটাই সরকারের সিদ্ধান্ত। এর বাইরে বিচ্ছিন্ন মন্তব্যকারীদের সঙ্গে সরকারের কোনো সম্পর্ক নেই।
ইনুর বক্তব্যের সময় উপস্থিত ছিলেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আবদুল আলীম স্বপন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শান্তি মনি চাকমা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) কামরুল ইসলাম, ভেড়ামারা ডায়াবেটিক সমিতি সাধারন সম্পাদক ড.অমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস সহ জাসদের নেতাকর্মীরা।

Post a Comment

0 Comments