ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনারের সাথে অস্বাস্থ্যকর টয়লেট

কুষ্টিয়া ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনারে সাথে রয়েছে অস্বাস্থ্যকর (পায়খানা) টয়লেট । গত ১৫ বছর ধরে উক্ত শহীদ মিনারে কলেজ কতৃপক্ষ ফুল না দেওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

ভেড়ামারা শহরের নওদাপাড়ায় অবস্থিত ভেড়ামার আদর্শ ডিগ্রী কলেজ। গত ১৫ বছরের মধ্যে ১দিনও মহান বিজয় দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও স্বাধীনতা দিবসসহ বিভিন্ন বিশেষ অনুষ্ঠানে ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজ কর্তৃক নির্মিত শহীদ মিনারে ফুল না দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অত্র কলেজে শহীদ মিনারের সাথে রয়েছে অস্বাস্থ্যকর (পায়খানা) টয়লেট। তার শহীদ মিনারের চারপাশে নোংরা ও আবর্জনা রয়েছে। শহীদ মিনার সংলগ্ন (সাথে থাকা) অস্বাস্থ্যকর (পায়খানা) টয়লেট রয়েছে। শহীদ মিনারের সাথে থাকা টয়লেটটি অপসারণের জন্য এলাকাবাসী জোর দাবি জানিয়েছেন। শহীদ মিনারটি পূর্ণাঙ্গ রূপ সহ বছরের তিনটি অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য অনুষ্ঠান গুলো যথাযথ মর্যাদায় পালনের জন্য সংশ্লি¬ষ্ট ব্যক্তিদের দৃষ্টি আকর্ষন করছেন সচেতন মহল। দ্রুত ব্যাবস্থা না নেওয়া হলে এলাকাবাসী শহীদ মিনার রক্ষায় এগিয়ে আসবে।
ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনার সংলগ্ন এলাকার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মহিলা জানান, আমার মেয়ের জন্মের পর থেকে দেখছি শহীদ মিনারে কোন দিন ফুল দিতে দেখি নাই। বর্তমান আমার মেয়ের বয়স ১৫ বছর। কলেজ কর্তৃপক্ষ শহীদ মিনারে কোনদিন পরিষ্কার বা পরিচ্ছন্নতা করে না। আমরা মাঝে মধ্যে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন তা করে থাকি। শহীদ মিনারটি সম্পন্ন অরক্ষিত হয়ে রয়েছে।
এলাকাবাসী আমজাদ হোসেন জানান, ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের শহীদ মিনারটি দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত রয়েছে। এটি দেখার কেউ নেই। শহীদ মিনারটি দখলে জন্য একটি কুচক্রী মহল পাঁয়তারা করছে। শহীদ মিনারের সাথে রয়েছে অস্বাস্থ্যকর (পায়খানা) টয়লেট। এটা একটি খুবই দুঃখ জনক। শহীদ মিনারটি দখল মুক্ত করে যথাযথ মর্যাদা দিতে হবে।
ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান মিজান জানান, অল্প কয়েকদিন হলো আমি দায়িত্ব পেয়েছি। শহীদ মিনারের ব্যাপারটি আপনার মাধ্যমে দৃষ্টি গোচর হয়েছি। আগামী ৭ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
ভেড়ামারা আদর্শ ডিগ্রী কলেজের গভার্নিং বডির সভাপতি ও সাবেক এমপি আহসান হাবিব লিংকন বলেন, শহীদ মিনারের ব্যাপারটি আমাকে কেউ অবগত করেনি। কেউ যদি শহীদ মিনারটি দখল বা শহীদ মিনারের সাথে (পায়খানা) টয়লেট থাকলে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Post a Comment

0 Comments