ভেড়ামারায় দৈনিক হিসনা বাণী পত্রিকার ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

 কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় দৈনিক হিসনা বাণী পত্রিকার ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উৎযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা, কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য কর্মসূচী পালিত হয়েছে। সোমবার পহেলা বৈশাখের পড়ন্ত বিকালে উৎসবমুখর পরিবেশে ভেড়ামারা উপজেলা সদর থেকে প্রকাশিত দৈনিক হিসনা বাণীর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ভেড়ামারা উপজেলা অডিটোরিয়ামে পত্রিকাটির প্রকাশক, সম্পাদক ও ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক আরিফুজ্জামান লিপটনের সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাপ্তাহিক চেতনায় কুষ্টিয়ার সম্পাদক প্রভাষক জাহাঙ্গীর হোসেন জুয়েলের সাবলীল সঞ্চালনায়
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ভেড়ামারা পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা আ‘লীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শামিমুল ইসলাম ছানা তার বক্তৃতায় বলেন, এই জনপদের অন্যায়, অনিয়মের চিত্র তুলে ধরার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে দৈনিক হিসনা বাণী ভূমিকা রেখে চলেছে। তিনি হিসনা বাণীতে প্রকাশিত কয়েকটি বস্তুনিষ্ঠ সংবাদের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, হিসনা বাণী পত্রিকাটি নিপীড়িত ও অসহায় মানুষের মুখপাত্র। তিনি পত্রিকাটির নিয়মিত ও ধারাবাহিক প্রকাশনা অব্যাহত রাখার উপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেন, সংবাদপত্র যেভাবে আর্তমানবতার পাশে দাঁড়ায় ঠিক সেভাবে সামর্থ অনুযায়ী সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিশেষ করে হিসনা বাণীর পত্রিকার সাথে একাত্ম হয়ে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। শুধূ সংবাদ প্রচার নয় সাহিত্য সাধনা ও জ্ঞাণ চর্চার ক্ষেত্র হিসেবে দৈনিক হিসনা বাণী যুগোপযোগী অবদান রাখতে পারে । তিন পত্রিকার সাংবাদিকদের প্রতি বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের ধানাবাহিকতা বজায় রাখার আহ্বান জানান। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ পেশাগুলোর মধ্যে সাংবাদিকতা অন্যতম। তবুও অকুতোভয় সাংবাদিকেরা ঝুঁকি ও সীমাবদ্ধতাকে উপেক্ষা করে পেশাগত দায়িত্ব পালন করেন। দেশের শতকরা ৮০ ভাগ সমস্যা সংবাদপত্রের মাধ্যমে মানুষের দৃষ্টিগোচর হয়। প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সংবাদপত্রে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে জাতীয় স্বার্থ অক্ষুন্ন রাখতে সচেষ্ট হন। তিনি তার উপজেলা থেকে প্রকাশিত দৈনিক হিসনা বাণীসহ অন্যান্য পত্রিকার সাফল্য কামনা করেন। বিশেষ অতিথি উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি ও বাহিরচর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবুবক্কার সিদ্দিক বললেন, তিনি দৈনিক হিসনা বাণীর একজন নিয়মিত পাঠক। স্থানীয় পাঠকদের চাহিদা পূরনে পত্রিকাটির ভূমিকা অনন্য। বিশিষ্ট পরিবেশ বিজ্ঞানী ও কলামিষ্ট গৌতম কুমার রায় পরিবেশ বাঁচাতে সংবাদপত্রের ভূমিকার বিষয়ে আলোকপাত করে বক্তব্য রাখেন। হিসনা নদীর নামে পত্রিকার নামকরনকে তিনি সাধুবাবাদ জানান। কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, বিআরজেএস‘র চেয়ারম্যান ও দৈনিক আরশীনগর পত্রিকার সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব বলেন,ভেড়ামারা বিদ্যুতের শহর। এটি এখন ডিজিটাল শহরে পরিণত হবার পথে রয়েছে। সাহসিকতার দিক দিয়েও ভেড়ামারার মানুষ এগিয়ে আছেন। মুক্তিযুদ্ধের রণাঙ্গণে ভেড়ামারার মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগী অবদান বিশেষভাবে উল্লেখের দাবী রাখে। তিনি আশা প্রকাশ করেন হিসনা বাণী সর্বদা গণমানুষের পক্ষে থাকবে। বাংলাদেশ টেলিভিশন জার্নালিষ্ট অ্যাসোসিয়েশন কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ও এনটিভির ষ্টাফ রিপোর্টার ফারুক আহাম্মেদ পিনু বলেন, ভেড়ামারা কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী ও গৌরবময় উপজেলা। এই উপজেলা থেকে একটি দৈনিকসহ ৪ থেকে ৫ টি পত্রিকা প্রকাশিত হয়। দৈনিক হিসনা বাণী ভেড়ামারার সাথে কুষ্টিয়া সদরসহ অন্যান্য উপজেলার গণমানুষের মধ্যে মেলবন্ধনের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দৈনিক স্বর্ণযুগ পত্রিকার সম্পাদক জামিল হাসান খোকন ও ভেড়ামারা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রাজা। আলোচনাসভা শেষে অতিথিগণের উপস্থিতিতে অনন্দঘণ পরিবেশে কেক কাটার কর্মসূচী সম্পন্ন হয়। সন্ধ্যার পর একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করেন আয়োজকেরা।

Post a Comment

0 Comments