ভেড়ামারায় বিএনপি নেতা আলম ও বাদলসহ ১৮ জন নেতাকর্মী জামিনে মুক্তি

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের নবাগত চেয়ারম্যান, কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. ও উপজেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক  তৌহিদুল ইসলাম আলম ও ভেড়ামারা মধ্যবাজার বণিক সমিতি’র সভাপতি ও পৌর বিএনপি’র প্রচার সম্পাদক বদরুজ্জামান বাদলসহ  বিএনপির ১৮জন নেতাকর্মী পৃথক ভাবে শুক্রবার বিকালে কুষ্টিয়া জেলা কারাগার থেকে ে মুক্তি লাভ করেন।
গত বছর ২৯ ডিসেম্বর ভেড়ামারা শহরের মধ্য বাজারে এলাকা থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিল শেষ করে গোড়াউন মোড়স্থ দলীয় কার্য্যালয়ে ফেরার পথে জাসদ নেতাকর্মীদের সাথে সংঘর্ষ শুরু হয়। ওই ঘটনায় ভেড়ামারা উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক এস এম আনছার আলী বাদি হয়ে ভেড়ামারা থানায় ৬২ জনের নাম উল্ল্যেখসহ অজ্ঞাত আরো ৩-৪’শ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এ মামলায় হাইকোর্ট এর জামিনের মেয়াদ শেষ হলে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে নেতাকর্মীরা কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসর্মাপন করে জামিন আবেদন করেন। বিজ্ঞ আদালত তাদের জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। দীর্ঘ প্রায় ১ মাস কারাভোগের পর ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের নবাগত চেয়ারম্যান, কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. ও উপজেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক  তৌহিদুল ইসলাম আলম ও ভেড়ামারা মধ্যবাজার বণিক সমিতি’র সভাপতি ও পৌর বিএনপি’র প্রচার সম্পাদক বদরুজ্জামান বাদলসহ  বিএনপির ১৮ নেতাকর্মী জেলা কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করেন। উল্লেখ্য, এই মামলায় এখানো প্রায় ২৯ জন বিএনপি নেতাকর্মী এখনও  জেল হাজতে রয়েছে।

Post a Comment

0 Comments