সিরাজগঞ্জ থানায় নারী নির্যাতন মামলার আসামী

ভেড়ামারার সাতবাড়িয়ায় টিটোর বাড়ীতে ছেলে-মেয়ে অবৈধ্য ভাবে বসবাস করার অভিযোগ ॥ টাকা নিয়ে গোলমাল
কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার ধরমপুর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া দক্ষিন ভবানীপুর নওদাপাড়া এলাকায় মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী টিটোর বাড়ীতে পলাতক ছেলে-মেয়ে অবৈধ্য ভাবে বসবাস করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সিরাজগঞ্জের পোড়ামারী সদনিন্দপুর গ্রামের মৃত আতাউর রহমানের ছেলে মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী  আজম আলী
একই এলাকার আনিনুর বেগমের বিদেশ থাকা স্বামীর ১০লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে এসেছে।  সিরাজগঞ্জ থানায় আনিনুর বেগমের পরিবার আজম আলীর বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করেছে। টিটো সাথে আজম আলীর টাকা ও মোটর সাইকেল নিয়ে গোলমাল হলে এলাকায় ঘটনাটি জানাজানি হয়।
এলাকা বাসীর অভিযোগে জানা যায়, সিরাজগঞ্জের পোড়ামারী সদনিন্দপুর গ্রামের মৃত আতাউর রহমানের ছেলে মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী  আজম আলী একই এলাকার ২ সন্তানের জনক আনিনুর বেগম সাথে অবৈধ্য সম্পর্ক গড়ে উঠে। আনিনুর বেগম স্বামী বিদেশ থাকায় আজম আলীর সাথে তার অবৈধ্য সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্ষযায় আনিনুর বেগমের স্বামী বিদেশ থেকে পাঠনো ১০ লাখ টাকা নিয়ে মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী  আজম আলী সাথে ভেড়ামারায়  পালিয়ে আসে। সম্প্রতি আজম আলী ও আনিনুর বেগম পালিয়ে উপজেলার ধরমপুর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া দক্ষিন ভবানীপুর নওদাপাড়া এলাকায় মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী টিটোর বাড়ীতে উঠে। বেশ কয়েকদিন ধরে টিটোর বাড়িতে আজম আলী ও আনিনুর বেগম অবৈধ্য ভাবে বসবাস করে। মেয়ের নিয়ে আসা ১০ লাখ টাকা, সোনার অলংকার ও ১টি মোটর সাইকেল ভেড়ামারার মুরগীর ফিড ব্যাবসায়ী টিটো কে দেয়। টিটোর সাথে আজম আলীর টাকা ও মোটর সাইকেল নিয়ে গোলমাল শুরু হলে এলাকায় জানাজানি হয়।
টিটো জানান, এলাকার মস্তান কে ১লাখ টাকা, চেয়ারম্যান মেন্বার দের ১ লাখ, জাসদ ও আওয়ামী লীগদের নেতাদের ২ লাখ, ভেড়ামারা পুলিশ কে ১ লাখ টাকা, বাকী টাকা অন্যান্য খরচ হয়েছে। এলাকার প্রভাবশালীরা মোটর সাইকেলটি নিয়ে গেছে। মোটর সাইকেলটি এলাকার এক প্রভাবশালী ব্যাক্তি চরে বেড়া্েচছ।
এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন মুহুতে এলাকায় বড় রকম সংঘর্ষ হতে পারে বলে আশংকা করছে।

Post a Comment

0 Comments