কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে ২য় বিভাগ ক্রিকেট লীগ উদ্বোধন

 ক্রীড়াঙ্গনের যথেষ্ট ইতিহাস ও ঐতিহ্য আছে-------সৈয়দ বেলাল হোসেন

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন বলেছেন, ক্রিকেট আজ শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্বের সকলদেশকে দখল করে নিয়েছে। সারা পৃথিবীতে চলছে ক্রিকেটের সুবর্ণ সময়। আমাদের দেশে ক্রিকেটের ক্ষেত্রে ঐতিহাসিক বিপ্লবী পরিবর্তন আনার চেষ্টা চলছে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সহ বিভাগ এবং জেলা পর্যায়ে নিয়মিত ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে। আর এ আয়োজন থেকে পিছিয়ে নেই কুষ্টিয়া জেলা। তিনি বলেন, একজন কৃতি খেলোয়াড় দেশের  রাষ্ট্রদূতের সমান কাজ করে। 
খেলোয়াড়রা অতি সহজেই নিজেকে এবং দেশকে, বিদেশের নিকট পরিচিত করাতে পারে। দেশের জন্য অতি সহজেই সুনাম বয়ে আনতে পারে খেলোয়াড়রা।  তাই জীবনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার ক্ষেত্রে খেলাধুলার গুরুত্ব অপরিসীম। জেলা প্রশাসক বলেন, কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গনের যথেষ্ট ইতিহাস ও ঐতিহ্য আছে। হাবিবুল বাশার সুমন, আনামুল হক বিজয় ও মোঃ মিথুন আলী’র মতো কৃতি ক্রিকেট খেলোয়াড় জন্ম নিয়েছে এই কুষ্টিয়ার মাটিতে। তাই আমি মনেকরি ক্রিকেটের ক্ষেত্রে কুষ্টিয়া হচ্ছে একটি গর্বিত জেলা। কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে গতকাল সকালে কুষ্টিয়া স্টেডিয়াম মাঠে ২য় বিভাগ ক্রিকেট লীগ-২০১৩-১৪ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন আরো বলেন, আমি ধন্যবাদ জানায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার সকল কর্মকর্তাকে। তাঁরা সততা ও নিষ্ঠার সাথে ক্রীড়ার উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন। যা অতীতে এধরণের নিয়মিত আয়োজন দেখা যায়নি। জেলা প্রশাসক খেলায়াড়দের উদ্দেশ্যে বলেন, খেলাতে জয়-পরাজয় থাকবেই। তবে প্রথম কথা হচ্ছে অংশগ্রহণ এবং দ্বিতীয় কথাটি হচ্ছে সুশৃঙ্খল। আশারাখি তোমরা সুশৃঙ্খলভাবে তোমাদের ক্রীড়া নৈপুন্য দেখিয়ে এগিয়ে যাবে এবং খেলাপড়ার পাশাপশি খেলাধুলার মাধ্যমে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হবে। ক্রীড়ার উন্নয়নে সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও ক্রিকেট উপ-পর্ষদের সভাপতি এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন লাবলু, সহ-সাধারণ সম্পাদক কাজী রফিকুর রহমান ও যুগ্ন-সম্পাদক খন্দঃ সাদাত উল আনাম পলাশ প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ খন্দকার ইকবাল মাহমুদ। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন লাবলু বলেন, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও কুষ্টিয়ার সুযোগ্য জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেনের সার্বিক সহযোগিতায় আমরা জেলা ক্রীড়া সংস্থাভূক্ত প্রতিটি খেলার নিয়মিত আয়োজন করে চলেছি। সার্বিক সহযোগিতা করায় তাঁকে জানায় আন্তরিক ধন্যবাদ। তিনি বলেন, আশারাখি আগামীতেও এ ধরণের আয়োজন অব্যাহত থাকবে। উদ্বোধনী প্রথম খেলায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্লাব ৭১ রানে কাজী মখলেস স্মৃতিকে পরাজিত করে এবং দ্বিতীয় খেলাটি পূর্বাচল ক্লাব ও খেলোয়ার কল্যান সমিতির মধ্যে ২০ ওভার ১১৬ রানে টাই হয়।

Post a Comment

0 Comments